ঢাকা ০৫:৩৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
তরুণ উদ্যোক্তা মাসুদ মিয়া-আয়ুব হাসানের যৌথ প্রয়াসের প্রতিষ্ঠান পিংক সিটি নিউ স্টার ফুটবল ক্লাব রতনপুরের সহসভাপতি সাইফুল ইসলাম সংবর্ধিত বালাগঞ্জে শান্তিপুর্ণভাবে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন সম্পন্ন : চমক দেখিয়ে আনহার মিয়া চেয়ারম্যান নির্বাচিত ফ্রান্সে বাংলাদেশি অভিবাসীদের জীবনমান উন্নয়নে ফরাসি জাতীয়তা বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত প্যারিসে Point d’Aide – এইড পয়েন্ট এর নতুন অফিসের উদ্বোধন তরুণ সাহিত্যিক সাদাত হোসাইনকে প্যারিসে সংবর্ধনা দিলো ফ্রান্সপ্রবাসী বাংলাদেশীরা গাজীপুর জেলা সমিতি,ফ্রান্স’র দ্বি বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত : ফারুক খান সভাপতি, জুয়েল সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত কেবল উপবাসের নামই সিয়াম নয়, প্রকৃত মানুষ হওয়ার শিক্ষাই সিয়াম ফ্রান্সে একটি সর্বজন গ্রহণযোগ্য ‘বাংলাদেশ সমিতি’র তাগিদ, একটি প্রস্তাবনা শিশু কিশোরদের নানা ইভেন্ট নিয়ে ইপিএস কমিউনিটি ফ্রান্সের স্বাধীনতা দিবস পালন

এমবাপ্পের জোড়া গোলে জয় পেল পিএসজি

  • আপডেট সময় ০৯:৫০:৪১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৯ অগাস্ট ২০১৮
  • ১৪৫ বার পড়া হয়েছে

লিগের দ্বিতীয় ম্যাচেই ধাক্কা খেতে বসেছিল পিএসজি। কোচ টমাস টুখেল কিলিয়ান এমবাপ্পেকে ছাড়াই একাদশ সাজিয়েছিলেন। প্রথমার্ধে ১-০ গোলে পিছিয়ে পড়ে বিপদেই পড়েছিল দল। দ্বিতীয়ার্ধে এমবাপ্পে নামতেই বদলে গেল দৃশ্যপট, পিএসজির চেহারা। ফ্রেঞ্চ লিগে গেঁগাঁকে ৩-১ গোলে হারিয়ে দিয়েছে পিএসজি। দুই গোল করেছেন এমবাপ্পে। সহায়তা করেছেন আরও একটিতে।Eprothomalo

সদ্য বিশ্বকাপ জিতে এসেছেন, সেখানে সেরা তরুণ খেলোয়াড় হয়েছেন এমবাপ্পে। এবার নেইমার নয়, এমবাপ্পেকেই ‘পোস্টার বয়’ মানছে ক্লাব। কাল মাঠে নেমেই যে খেলা বদলে দিয়েছেন, তাতে পিএসজির নতুন সুপারস্টার তকমা তাঁকেই মানা যায়। এমবাপ্পে নামার পরই প্রথম গোল পেয়েছে দল। ডি–বক্সে নেইমারকে খুঁজে পেয়েছিল তাঁর পাস। সেখান থেকে পাওয়া পেনাল্টি থেকে গোল করে ম্যাচে সমতা আনেন নেইমার। ম্যাচের শেষভাগে দুই গোল করে দলের জয় নিশ্চিত করেছেন এমবাপ্পে নিজেই। শেষ গোলটি এমবাপ্পেকে বানিয়ে দিয়েছেন নেইমার।

এমবাপ্পে তাই নিজেকে নয়, নেইমারকে নিয়েই কথা বলতে আগ্রহী। এখনো ব্রাজিলিয়ান তারকার পর্যায়ে যেতে পারেননি বলে দাবি করছেন বিশ্বকাপজয়ী ফরোয়ার্ড, ‘নেইমার একজন সুপারস্টার। আমার চেয়ে অনেক বড় ফুটবলার। আমি এখনো সে পর্যায়ে যাইনি। বার্সেলোনাতে বেশ কয়েক বছর পরিশ্রম করে এটা প্রমাণ করেছে। আমাদের স্কোয়াডে আরও বেশ কয়েকজন আছে যারা এমন মহাতারকা।’

মাঠে এমবাপ্পে নামার পরই খেলার গতি পাল্টে গেছে। কিন্তু এখনো বিশ না পেরোনো এই ফরোয়ার্ডের দাবি দল এমনিতেও ঘুরে দাঁড়াত, ‘আমার মনে হয় না আমিই সব বদলে দিয়েছি। পুরো দল প্রথমার্ধে ভালো খেলতে চেয়েছে। দ্বিতীয়ার্ধে দল ভিন্ন রূপ দেখিয়েছে। দুই গোল করে আমি দলকে সাহায্য করেছি কিন্তু এর পুরো কৃতিত্ব আমার নয়।’

মেসি-রোনালদো যে স্বাদ পাননি, সেটা কৈশোর পেরোতে না পেরোতেই পেয়ে গেছেন এমবাপ্পে। বিশ্বকাপ শুধু জেতেননি, দলের বিশ্বকাপ অবদানে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। এমন দুর্দান্ত স্মৃতিকে সঙ্গী করে নতুন মৌসুমে এমবাপ্পে আরও ভালো কিছু করবেন বলে ধারণা করছেন সবাই। আবার অনেকের ধারণা, এখনই সব পেয়ে যাওয়ার আত্মতুষ্টিতে ভুগবেন এমবাপ্পে। ফ্রেঞ্চ ফরোয়ার্ড অবশ্য বিশ্বকাপ জয়ের আনন্দকে ক্লাব ফুটবল থেকে দূরে রাখতে চান, ‘আমরা যেভাবে উদ্‌যাপন করা দরকার সেভাবে করেছি, কিন্তু ফুটবল বসে থাকে না (নতুন মৌসুম, নতুন চ্যালেঞ্জ)। আমার ক্যারিয়ার মাত্র শুরু হয়েছে এবং ক্লাব ও জাতীয় দলের হয়ে অনেক কিছু জেতার ইচ্ছা আমার। আপনাকে তো চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে (জেতার পরও)। আপনি তো বসে থাকবেন আর কিছু করবেন না, এটা হয় না!’

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

লক ডাউন পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবেলায় ফ্রান্সে চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি

যুক্তরাজ্যে করোনার মধ্যেই শিশুদের মাঝে নতুন রোগের হানা

তরুণ উদ্যোক্তা মাসুদ মিয়া-আয়ুব হাসানের যৌথ প্রয়াসের প্রতিষ্ঠান পিংক সিটি

এমবাপ্পের জোড়া গোলে জয় পেল পিএসজি

আপডেট সময় ০৯:৫০:৪১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৯ অগাস্ট ২০১৮

লিগের দ্বিতীয় ম্যাচেই ধাক্কা খেতে বসেছিল পিএসজি। কোচ টমাস টুখেল কিলিয়ান এমবাপ্পেকে ছাড়াই একাদশ সাজিয়েছিলেন। প্রথমার্ধে ১-০ গোলে পিছিয়ে পড়ে বিপদেই পড়েছিল দল। দ্বিতীয়ার্ধে এমবাপ্পে নামতেই বদলে গেল দৃশ্যপট, পিএসজির চেহারা। ফ্রেঞ্চ লিগে গেঁগাঁকে ৩-১ গোলে হারিয়ে দিয়েছে পিএসজি। দুই গোল করেছেন এমবাপ্পে। সহায়তা করেছেন আরও একটিতে।Eprothomalo

সদ্য বিশ্বকাপ জিতে এসেছেন, সেখানে সেরা তরুণ খেলোয়াড় হয়েছেন এমবাপ্পে। এবার নেইমার নয়, এমবাপ্পেকেই ‘পোস্টার বয়’ মানছে ক্লাব। কাল মাঠে নেমেই যে খেলা বদলে দিয়েছেন, তাতে পিএসজির নতুন সুপারস্টার তকমা তাঁকেই মানা যায়। এমবাপ্পে নামার পরই প্রথম গোল পেয়েছে দল। ডি–বক্সে নেইমারকে খুঁজে পেয়েছিল তাঁর পাস। সেখান থেকে পাওয়া পেনাল্টি থেকে গোল করে ম্যাচে সমতা আনেন নেইমার। ম্যাচের শেষভাগে দুই গোল করে দলের জয় নিশ্চিত করেছেন এমবাপ্পে নিজেই। শেষ গোলটি এমবাপ্পেকে বানিয়ে দিয়েছেন নেইমার।

এমবাপ্পে তাই নিজেকে নয়, নেইমারকে নিয়েই কথা বলতে আগ্রহী। এখনো ব্রাজিলিয়ান তারকার পর্যায়ে যেতে পারেননি বলে দাবি করছেন বিশ্বকাপজয়ী ফরোয়ার্ড, ‘নেইমার একজন সুপারস্টার। আমার চেয়ে অনেক বড় ফুটবলার। আমি এখনো সে পর্যায়ে যাইনি। বার্সেলোনাতে বেশ কয়েক বছর পরিশ্রম করে এটা প্রমাণ করেছে। আমাদের স্কোয়াডে আরও বেশ কয়েকজন আছে যারা এমন মহাতারকা।’

মাঠে এমবাপ্পে নামার পরই খেলার গতি পাল্টে গেছে। কিন্তু এখনো বিশ না পেরোনো এই ফরোয়ার্ডের দাবি দল এমনিতেও ঘুরে দাঁড়াত, ‘আমার মনে হয় না আমিই সব বদলে দিয়েছি। পুরো দল প্রথমার্ধে ভালো খেলতে চেয়েছে। দ্বিতীয়ার্ধে দল ভিন্ন রূপ দেখিয়েছে। দুই গোল করে আমি দলকে সাহায্য করেছি কিন্তু এর পুরো কৃতিত্ব আমার নয়।’

মেসি-রোনালদো যে স্বাদ পাননি, সেটা কৈশোর পেরোতে না পেরোতেই পেয়ে গেছেন এমবাপ্পে। বিশ্বকাপ শুধু জেতেননি, দলের বিশ্বকাপ অবদানে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। এমন দুর্দান্ত স্মৃতিকে সঙ্গী করে নতুন মৌসুমে এমবাপ্পে আরও ভালো কিছু করবেন বলে ধারণা করছেন সবাই। আবার অনেকের ধারণা, এখনই সব পেয়ে যাওয়ার আত্মতুষ্টিতে ভুগবেন এমবাপ্পে। ফ্রেঞ্চ ফরোয়ার্ড অবশ্য বিশ্বকাপ জয়ের আনন্দকে ক্লাব ফুটবল থেকে দূরে রাখতে চান, ‘আমরা যেভাবে উদ্‌যাপন করা দরকার সেভাবে করেছি, কিন্তু ফুটবল বসে থাকে না (নতুন মৌসুম, নতুন চ্যালেঞ্জ)। আমার ক্যারিয়ার মাত্র শুরু হয়েছে এবং ক্লাব ও জাতীয় দলের হয়ে অনেক কিছু জেতার ইচ্ছা আমার। আপনাকে তো চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে (জেতার পরও)। আপনি তো বসে থাকবেন আর কিছু করবেন না, এটা হয় না!’