ঢাকা ০৪:৫২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
বালাগঞ্জের হাফিজ মাওলানা সামসুল ইসলাম লন্ডনের university of central Lancashire থেকে মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জন করলেন বালাগঞ্জে সাংবাদিকদের সাথে উপ-নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হাজী রফিক আহমদ এর মতবিনিময় দেওয়ানবাজার ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল আলমের পক্ষ থেকে বন্যার্তদের মাঝে খাবার বিতরণ জনকল্যাণ ডেভেলপমেন্ট এসোসিয়েশন ইউকের পক্ষ থেকে উপহার সামগ্রী বিতরণ প্যারিসে অনুষ্ঠিত হলো, ‘রৌদ্র ছায়ায় কবি কন্ঠে কাব্য কথা’ শীর্ষক কবিতায় আড্ডা ফ্রান্স দর্পণ – কমিউনিটি-সংবেদনশীল মুখপত্র এম সি ইন্সটিটিউট ফ্রান্সের সুধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত বিএনপি চেয়ারপারসনের “স্পেশাল এসিস্ট্যান্ট টু দ্য ফরেন এফেয়ার্স” উপদেষ্টা হলেন হাজি হাবিব ইপিএস কমিউনিটি ফ্রান্সের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হলো ‘ফেত দ্যো লা মিউজিক ২০২৪ তরুণ উদ্যোক্তা মাসুদ মিয়া-আয়ুব হাসানের যৌথ প্রয়াসের প্রতিষ্ঠান পিংক সিটি

করোনাভাইরাস: পরীক্ষার কিট নেই সিলেটে!

  • আপডেট সময় ০৫:৫০:২৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৭ মার্চ ২০২০
  • ৭৬ বার পড়া হয়েছে

Warning: Attempt to read property "post_excerpt" on null in /home/u305720254/domains/francedorpan.com/public_html/wp-content/themes/newspaper-pro/template-parts/common/single_two.php on line 117

ভয়ঙ্কর করোনাভাইরাস বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে মহামারি আকারে। এই ভাইরাসকে থামাতে না পেরে ভয় আর আতঙ্কে কাঁপছে দুনিয়া। করোনা আঘাত হেনেছে বাংলাদেশেও। ফলে সারাদেশের মানুষের মধ্যে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা বিরাজ করছে।

এই উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা সিলেটের মানুষের মধ্যে অনেক বেশি। সিলেট প্রবাসী অধ্যুষিত অঞ্চল। করোনাভাইরাস বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়ার পরও শত শত সিলেটি প্রবাসী দেশে ফিরেছেন। যুক্তরাজ্য, ইতালি, সৌদিআরব, আরব আমিরাত প্রভৃতি দেশ থেকে এসেছেন তারা। ফলে তাদের মাধ্যমে সিলেট তথা দেশে করোনাভাইরাস এলো কিনা, এ নিয়ে অনেকেই শঙ্কিত।

কিন্তু প্রবাস থেকে ফেরা কিংবা কারো মধ্যে করোনাভাইরাসের লক্ষণ দেখা দিলে নিশ্চিত হওয়ার জন্য পরীক্ষা করার কোনো কিট নেই সিলেটে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালসহ কোনো সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালেই করোনাভাইরাস পরীক্ষার কিট নেই।

জানা গেছে, সিলেটে কারো মধ্যে করোনাক্রান্ত হওয়ার কোনো লক্ষণ দেখা গেলে তাকে শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়। এখানে ১০০ শয্যার আইসোলেশন ইউনিট আছে। কয়েক দিন আগে কানাইঘাটের এক যুবক, যিনি আরব আমিরাত থেকে দেশে ফিরেছেন, তার মধ্যে করোনাক্রান্ত হওয়ার লক্ষণ দেখা গেল এই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু তিনি আসলেই করোনাক্রান্ত কিনা, তা জানতে তার রক্তের নমুনা পাঠানো হয় ঢাকায়। কেননা, সিলেটের কোনো হাসপাতালেই করোনাভাইরাস পরীক্ষার কোনো কিট নেই।

ওই যুবকের রক্তের নমুনা পরীক্ষা করা হয় জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইন্সটিটিউটে (আইইডিসিআর)। তবে পরীক্ষায় তার শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া যায়নি।

সচেতন সমাজের প্রতিনিধিরা বলছেন, সিলেটে করোনাভাইরাস পরীক্ষা করানোর মতো কিট না থাকা অবশ্যই খারাপ খবর। এই ভাইরাস বাংলাদেশে যদি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে, তখন তাৎক্ষণিক পরীক্ষার জন্য শুধু সিলেটই নয়, দেশের সব জেলায় সব হাসপাতালে এ কিট থাকা প্রয়োজন। কেননা, সিলেট থেকে রক্তের নমুনা ঢাকায় পাঠিয়ে পরীক্ষা করিয়ে আনা সময়সাপেক্ষ ব্যাপার।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. হিমাংশু লাল রায় সিলেটভিউকে বলেন, ‘আপাতত ঢাকায় কেন্দ্রীয়ভাবে করোনাভাইরাসের পরীক্ষা করা হচ্ছে। তবে সিলেটেও পরীক্ষা করার কিট প্রয়োজন। আমরা আগামীকাল বুধবার সকালে এ বিষয়ে ঢাকায় কথা বলবো।’

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

লক ডাউন পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবেলায় ফ্রান্সে চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি

যুক্তরাজ্যে করোনার মধ্যেই শিশুদের মাঝে নতুন রোগের হানা

বালাগঞ্জের হাফিজ মাওলানা সামসুল ইসলাম লন্ডনের university of central Lancashire থেকে মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জন করলেন

করোনাভাইরাস: পরীক্ষার কিট নেই সিলেটে!

আপডেট সময় ০৫:৫০:২৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৭ মার্চ ২০২০

ভয়ঙ্কর করোনাভাইরাস বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে মহামারি আকারে। এই ভাইরাসকে থামাতে না পেরে ভয় আর আতঙ্কে কাঁপছে দুনিয়া। করোনা আঘাত হেনেছে বাংলাদেশেও। ফলে সারাদেশের মানুষের মধ্যে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা বিরাজ করছে।

এই উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা সিলেটের মানুষের মধ্যে অনেক বেশি। সিলেট প্রবাসী অধ্যুষিত অঞ্চল। করোনাভাইরাস বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়ার পরও শত শত সিলেটি প্রবাসী দেশে ফিরেছেন। যুক্তরাজ্য, ইতালি, সৌদিআরব, আরব আমিরাত প্রভৃতি দেশ থেকে এসেছেন তারা। ফলে তাদের মাধ্যমে সিলেট তথা দেশে করোনাভাইরাস এলো কিনা, এ নিয়ে অনেকেই শঙ্কিত।

কিন্তু প্রবাস থেকে ফেরা কিংবা কারো মধ্যে করোনাভাইরাসের লক্ষণ দেখা দিলে নিশ্চিত হওয়ার জন্য পরীক্ষা করার কোনো কিট নেই সিলেটে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালসহ কোনো সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালেই করোনাভাইরাস পরীক্ষার কিট নেই।

জানা গেছে, সিলেটে কারো মধ্যে করোনাক্রান্ত হওয়ার কোনো লক্ষণ দেখা গেলে তাকে শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়। এখানে ১০০ শয্যার আইসোলেশন ইউনিট আছে। কয়েক দিন আগে কানাইঘাটের এক যুবক, যিনি আরব আমিরাত থেকে দেশে ফিরেছেন, তার মধ্যে করোনাক্রান্ত হওয়ার লক্ষণ দেখা গেল এই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু তিনি আসলেই করোনাক্রান্ত কিনা, তা জানতে তার রক্তের নমুনা পাঠানো হয় ঢাকায়। কেননা, সিলেটের কোনো হাসপাতালেই করোনাভাইরাস পরীক্ষার কোনো কিট নেই।

ওই যুবকের রক্তের নমুনা পরীক্ষা করা হয় জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইন্সটিটিউটে (আইইডিসিআর)। তবে পরীক্ষায় তার শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া যায়নি।

সচেতন সমাজের প্রতিনিধিরা বলছেন, সিলেটে করোনাভাইরাস পরীক্ষা করানোর মতো কিট না থাকা অবশ্যই খারাপ খবর। এই ভাইরাস বাংলাদেশে যদি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে, তখন তাৎক্ষণিক পরীক্ষার জন্য শুধু সিলেটই নয়, দেশের সব জেলায় সব হাসপাতালে এ কিট থাকা প্রয়োজন। কেননা, সিলেট থেকে রক্তের নমুনা ঢাকায় পাঠিয়ে পরীক্ষা করিয়ে আনা সময়সাপেক্ষ ব্যাপার।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. হিমাংশু লাল রায় সিলেটভিউকে বলেন, ‘আপাতত ঢাকায় কেন্দ্রীয়ভাবে করোনাভাইরাসের পরীক্ষা করা হচ্ছে। তবে সিলেটেও পরীক্ষা করার কিট প্রয়োজন। আমরা আগামীকাল বুধবার সকালে এ বিষয়ে ঢাকায় কথা বলবো।’