ঢাকা ১১:০০ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
প্রবাসে বাংলার সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য ধরে রাখার লক্ষ্যে রোমে বৃহত্তম ঢাকাবাসীর পিঠা উৎসব নতুন তত্ত্ব ও জ্ঞান সৃষ্টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল উদ্দেশ্যঃ ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক ফ্রান্স দর্পণ পত্রিকার সম্পাদকের ভাইয়ের মৃত্যুতে প্যারিসে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত ইপিএস কমিউনিটি ইন ফ্রান্স এর উদ্যোগে মহান বিজয় দিবস পালিত গ্লোবাল জালালাবাদ এসোসিয়েশন ফ্রান্সের নবগঠিত কমিটির আত্মপ্রকাশ ফরাসি নাট্যমঞ্চে বাংলাদেশি শোয়েব বালাগঞ্জে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত রুপালী ব্যাংক লিমিটেড সুলতানপুর শাখার উদ্যোগে প্রকাশ্যে কৃষি ও পল্লী ঋণ বিতরণ অনুষ্ঠিত সাজাপ্রাপ্ত এক আসামীকে গ্রেফতার করেছে বালাগঞ্জ থানায় পুলিশ গহরপুরে কৃতি ফুটবলার লায়েক আহমদ সংবর্ধিত; জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে লেখাপড়ার গুরুত্ব অনুভব করেছি

ফ্রান্সে আবারও ছুরি হামলা, নিহত২ঃ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • আপডেট সময় ০২:০৮:৫৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ অগাস্ট ২০১৮
  • ১১৬০ বার পড়া হয়েছে

সন্ত্রাসী হামলার সতর্কতার মধ্যেই ফ্রান্সের রাজধানীর প্যারিসের একটি শহরতলীতে ছুরি হামলায় দুই নারীকে হত্যা করেছে এক পুরুষ।খবরে বলা হয়েছে নিহত দুই নারী সম্পর্কে মা ও মেয়ে। হামলায় আহত হয়েছে তৃতীয় এক নারী। ফ্রান্সের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সূতের বরাত দিয়ে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, ঘটনার শিকার হওয়ারা হামলাকারীর আত্মীয় এবং তাদের পারিবারিক বিরোধের খবর খতিয়ে দেখা হচ্ছে। মধ্যপ্রাচ্যের সশস্ত্র গোষ্ঠী আইএস এই হামলায় দায় স্বীকার করলেও কোনও প্রমাণ দেয়নি।
২০১৫ সালের নভেম্বরে ধারাবাহিক সন্ত্রাসী হামলায় প্রায় দেড়শো মানুষের প্রাণহানির পর থেকে প্যারিসে সতর্কতা জারি রয়েছে। এর মধ্যেই বৃহস্পতিবার (২৩ আগস্ট) প্যারিসের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের শহরতলী ট্রাপেস এ এই হামলার ঘটনা ঘটে।

ঐতিহাসিক শহর ভার্সাইয়ের কাছাকাছি অবস্থিত ট্রাপেস দারিদ্র ও সংঘবদ্ধ সহিংস ঘটনার জন্য পরিচিত। এই এলাকায় উল্লেখযোগ্য পরিমাণ মুসলিম ধর্মাবলম্বীর বাস। নিরাপত্তা সূত্রকে উদ্ধৃত করে ফরাসি বার্তা সংস্থা এফপি জানিয়েছে, আইএস’এ যোগ দিতে অন্তত ৫০ জন ওই এলাকা ছেড়েছে বলে ধারণা করা হয়।

ফ্রান্সের লা প্যারিসিয়ান সংবাদপত্রের খবরে বলা হয়েছে, হামলার পর কয়েকটি ছুরি নিয়ে ৩০’র কোঠায় প্রবেশ করা হামলাকারী পাশের একটি বাড়িতে ঢুকে পড়ে। বাইরের পুলিশকে লক্ষ্য করে চিৎকার করতে থাকে ‘এগিয়ে আসলে তোমাদের সবাইকে উড়িয়ে দেব।’ পরে পুলিশের গুলিতে নিহত হয় ওই হামলাকারী।

হামলায় আহত তৃতীয় নারীর অবস্থা সম্পর্কে এখনও কিছু জানা যায়নি। ইউরোপ ১ রেডিও’র খবরে বলা হয়েছে, ঘটনার শুরুতেই জরুরি ফোন করে পুলিশকে জানানো হয়। এ থেকে ধারণা করা হচ্ছে পারিবারিক বিরোধে এই হামলার ঘটনা ঘটেছে।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

লক ডাউন পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবেলায় ফ্রান্সে চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি

যুক্তরাজ্যে করোনার মধ্যেই শিশুদের মাঝে নতুন রোগের হানা

প্রবাসে বাংলার সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য ধরে রাখার লক্ষ্যে রোমে বৃহত্তম ঢাকাবাসীর পিঠা উৎসব

ফ্রান্সে আবারও ছুরি হামলা, নিহত২ঃ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

আপডেট সময় ০২:০৮:৫৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ অগাস্ট ২০১৮

সন্ত্রাসী হামলার সতর্কতার মধ্যেই ফ্রান্সের রাজধানীর প্যারিসের একটি শহরতলীতে ছুরি হামলায় দুই নারীকে হত্যা করেছে এক পুরুষ।খবরে বলা হয়েছে নিহত দুই নারী সম্পর্কে মা ও মেয়ে। হামলায় আহত হয়েছে তৃতীয় এক নারী। ফ্রান্সের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সূতের বরাত দিয়ে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, ঘটনার শিকার হওয়ারা হামলাকারীর আত্মীয় এবং তাদের পারিবারিক বিরোধের খবর খতিয়ে দেখা হচ্ছে। মধ্যপ্রাচ্যের সশস্ত্র গোষ্ঠী আইএস এই হামলায় দায় স্বীকার করলেও কোনও প্রমাণ দেয়নি।
২০১৫ সালের নভেম্বরে ধারাবাহিক সন্ত্রাসী হামলায় প্রায় দেড়শো মানুষের প্রাণহানির পর থেকে প্যারিসে সতর্কতা জারি রয়েছে। এর মধ্যেই বৃহস্পতিবার (২৩ আগস্ট) প্যারিসের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের শহরতলী ট্রাপেস এ এই হামলার ঘটনা ঘটে।

ঐতিহাসিক শহর ভার্সাইয়ের কাছাকাছি অবস্থিত ট্রাপেস দারিদ্র ও সংঘবদ্ধ সহিংস ঘটনার জন্য পরিচিত। এই এলাকায় উল্লেখযোগ্য পরিমাণ মুসলিম ধর্মাবলম্বীর বাস। নিরাপত্তা সূত্রকে উদ্ধৃত করে ফরাসি বার্তা সংস্থা এফপি জানিয়েছে, আইএস’এ যোগ দিতে অন্তত ৫০ জন ওই এলাকা ছেড়েছে বলে ধারণা করা হয়।

ফ্রান্সের লা প্যারিসিয়ান সংবাদপত্রের খবরে বলা হয়েছে, হামলার পর কয়েকটি ছুরি নিয়ে ৩০’র কোঠায় প্রবেশ করা হামলাকারী পাশের একটি বাড়িতে ঢুকে পড়ে। বাইরের পুলিশকে লক্ষ্য করে চিৎকার করতে থাকে ‘এগিয়ে আসলে তোমাদের সবাইকে উড়িয়ে দেব।’ পরে পুলিশের গুলিতে নিহত হয় ওই হামলাকারী।

হামলায় আহত তৃতীয় নারীর অবস্থা সম্পর্কে এখনও কিছু জানা যায়নি। ইউরোপ ১ রেডিও’র খবরে বলা হয়েছে, ঘটনার শুরুতেই জরুরি ফোন করে পুলিশকে জানানো হয়। এ থেকে ধারণা করা হচ্ছে পারিবারিক বিরোধে এই হামলার ঘটনা ঘটেছে।