ঢাকা ১২:৩২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
তরুণ উদ্যোক্তা মাসুদ মিয়া-আয়ুব হাসানের যৌথ প্রয়াসের প্রতিষ্ঠান পিংক সিটি নিউ স্টার ফুটবল ক্লাব রতনপুরের সহসভাপতি সাইফুল ইসলাম সংবর্ধিত বালাগঞ্জে শান্তিপুর্ণভাবে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন সম্পন্ন : চমক দেখিয়ে আনহার মিয়া চেয়ারম্যান নির্বাচিত ফ্রান্সে বাংলাদেশি অভিবাসীদের জীবনমান উন্নয়নে ফরাসি জাতীয়তা বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত প্যারিসে Point d’Aide – এইড পয়েন্ট এর নতুন অফিসের উদ্বোধন তরুণ সাহিত্যিক সাদাত হোসাইনকে প্যারিসে সংবর্ধনা দিলো ফ্রান্সপ্রবাসী বাংলাদেশীরা গাজীপুর জেলা সমিতি,ফ্রান্স’র দ্বি বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত : ফারুক খান সভাপতি, জুয়েল সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত কেবল উপবাসের নামই সিয়াম নয়, প্রকৃত মানুষ হওয়ার শিক্ষাই সিয়াম ফ্রান্সে একটি সর্বজন গ্রহণযোগ্য ‘বাংলাদেশ সমিতি’র তাগিদ, একটি প্রস্তাবনা শিশু কিশোরদের নানা ইভেন্ট নিয়ে ইপিএস কমিউনিটি ফ্রান্সের স্বাধীনতা দিবস পালন

ফ্রান্সে মে দিবসের শোভাযাত্রায় মুখোশধারীদের সহিংসতা, আটক ২০০

  • আপডেট সময় ১১:১৪:৪৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২ মে ২০১৮
  • ২৯০ বার পড়া হয়েছে

ফ্রান্সের প্যারিসে মে দিবসের শোভাযাত্রা থেকে সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর পাবলিক সেক্টরে শ্রমিকদের মর্যাদা পুনর্গঠনের প্রতিবাদে শ্রমিক ইউনিয়ন আয়োজিত ওই বিক্ষোভে সহিংসতার ঘটনায় আহত হয়েছে এক পুলিশ সদস্যসহ চারজন। দোকানপাট ভাঙচুর ছাড়াও আগুন দেওয়া হয়েছে বেশ কয়েকটি গাড়িতে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, ব্লাক ব্লকস নামে পরিচিত বামপন্থি এনার্কিস্ট গ্রুপ মুখোশ পরে ওই বিক্ষোভে ঢুকে পড়ে সহিংসতার ঘটনা ঘটায়। মুখোশ পরে বিক্ষোভে অংশ নেওয়ার সমালোচনা করেছে ফ্রান্স সরকার।

ম্যাক্রোঁর পুনর্গঠন পরিকল্পনা নিয়ে ফ্রান্সে সম্প্রতি ব্যাপক অসন্তোষ দেখা যাচ্ছে। তিন মাস ধরে দেশব্যাপী ধর্মঘট করছেন রেল শ্রমিকরা। গত মার্চে তাদের সঙ্গে যোগ দেয় কয়েক হাজার শিক্ষক, নার্সসহ অন্য শ্রমিক। তবে নিজের পরিকল্পনা এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্তে অটল থাকার কথা জানিয়েছেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট। মঙ্গলবার মে দিবসের বিক্ষোভে প্রায় ৫৫ হাজার মানুষ অংশ নেয় বলে দাবি করেছে শ্রমিক ইউনিয়ন। তবে এই সংখ্য ২০ হাজার বলে দাবি দেশটির পুলিশের। ফান্সের পুলিশ বলছে, মুখোশ পরা প্রায় ১২শ’ বিক্ষোভকারী মে দিবসের ওই শোভাযাত্রায় অংশ নিয়েছিল।

কালো রঙের পোশাক পরা বিক্ষোভকারীরা রাস্তার আশপাশের দোকানপাটের কাচ ভাঙচুর ছাড়াও ম্যাকডোনাল্ডসের একটি দোকানে আগুন ধরিয়ে দেয়। আগুন দেওয়া হয় বেশ কয়েকটি গাড়িতে। একটি গাড়ির দোকানেও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কাঁদানে গ্যাস, টিয়ারশেল, স্প্রে ও জলকামান ব্যবহার করে পুলিশ। মুখ ঢেকে অংশ নেওয়ায় বিক্ষোভকারীদের সমালোচনা করেছেন ফ্রান্স সরকারের মুখপাত্র বেঞ্জামিন গ্রেভাক্স। বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, বিশ্বাস আন্তরিক হলে মুখোশ ছাড়াই বিক্ষোভে অংশ নিতো। মুখ ঢেকে অংশ নেওয়ারা গণতন্ত্রের শত্রু।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

লক ডাউন পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবেলায় ফ্রান্সে চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি

যুক্তরাজ্যে করোনার মধ্যেই শিশুদের মাঝে নতুন রোগের হানা

তরুণ উদ্যোক্তা মাসুদ মিয়া-আয়ুব হাসানের যৌথ প্রয়াসের প্রতিষ্ঠান পিংক সিটি

ফ্রান্সে মে দিবসের শোভাযাত্রায় মুখোশধারীদের সহিংসতা, আটক ২০০

আপডেট সময় ১১:১৪:৪৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২ মে ২০১৮

ফ্রান্সের প্যারিসে মে দিবসের শোভাযাত্রা থেকে সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর পাবলিক সেক্টরে শ্রমিকদের মর্যাদা পুনর্গঠনের প্রতিবাদে শ্রমিক ইউনিয়ন আয়োজিত ওই বিক্ষোভে সহিংসতার ঘটনায় আহত হয়েছে এক পুলিশ সদস্যসহ চারজন। দোকানপাট ভাঙচুর ছাড়াও আগুন দেওয়া হয়েছে বেশ কয়েকটি গাড়িতে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, ব্লাক ব্লকস নামে পরিচিত বামপন্থি এনার্কিস্ট গ্রুপ মুখোশ পরে ওই বিক্ষোভে ঢুকে পড়ে সহিংসতার ঘটনা ঘটায়। মুখোশ পরে বিক্ষোভে অংশ নেওয়ার সমালোচনা করেছে ফ্রান্স সরকার।

ম্যাক্রোঁর পুনর্গঠন পরিকল্পনা নিয়ে ফ্রান্সে সম্প্রতি ব্যাপক অসন্তোষ দেখা যাচ্ছে। তিন মাস ধরে দেশব্যাপী ধর্মঘট করছেন রেল শ্রমিকরা। গত মার্চে তাদের সঙ্গে যোগ দেয় কয়েক হাজার শিক্ষক, নার্সসহ অন্য শ্রমিক। তবে নিজের পরিকল্পনা এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্তে অটল থাকার কথা জানিয়েছেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট। মঙ্গলবার মে দিবসের বিক্ষোভে প্রায় ৫৫ হাজার মানুষ অংশ নেয় বলে দাবি করেছে শ্রমিক ইউনিয়ন। তবে এই সংখ্য ২০ হাজার বলে দাবি দেশটির পুলিশের। ফান্সের পুলিশ বলছে, মুখোশ পরা প্রায় ১২শ’ বিক্ষোভকারী মে দিবসের ওই শোভাযাত্রায় অংশ নিয়েছিল।

কালো রঙের পোশাক পরা বিক্ষোভকারীরা রাস্তার আশপাশের দোকানপাটের কাচ ভাঙচুর ছাড়াও ম্যাকডোনাল্ডসের একটি দোকানে আগুন ধরিয়ে দেয়। আগুন দেওয়া হয় বেশ কয়েকটি গাড়িতে। একটি গাড়ির দোকানেও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কাঁদানে গ্যাস, টিয়ারশেল, স্প্রে ও জলকামান ব্যবহার করে পুলিশ। মুখ ঢেকে অংশ নেওয়ায় বিক্ষোভকারীদের সমালোচনা করেছেন ফ্রান্স সরকারের মুখপাত্র বেঞ্জামিন গ্রেভাক্স। বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, বিশ্বাস আন্তরিক হলে মুখোশ ছাড়াই বিক্ষোভে অংশ নিতো। মুখ ঢেকে অংশ নেওয়ারা গণতন্ত্রের শত্রু।