ঢাকা ১১:০৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
তরুণ উদ্যোক্তা মাসুদ মিয়া-আয়ুব হাসানের যৌথ প্রয়াসের প্রতিষ্ঠান পিংক সিটি নিউ স্টার ফুটবল ক্লাব রতনপুরের সহসভাপতি সাইফুল ইসলাম সংবর্ধিত বালাগঞ্জে শান্তিপুর্ণভাবে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন সম্পন্ন : চমক দেখিয়ে আনহার মিয়া চেয়ারম্যান নির্বাচিত ফ্রান্সে বাংলাদেশি অভিবাসীদের জীবনমান উন্নয়নে ফরাসি জাতীয়তা বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত প্যারিসে Point d’Aide – এইড পয়েন্ট এর নতুন অফিসের উদ্বোধন তরুণ সাহিত্যিক সাদাত হোসাইনকে প্যারিসে সংবর্ধনা দিলো ফ্রান্সপ্রবাসী বাংলাদেশীরা গাজীপুর জেলা সমিতি,ফ্রান্স’র দ্বি বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত : ফারুক খান সভাপতি, জুয়েল সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত কেবল উপবাসের নামই সিয়াম নয়, প্রকৃত মানুষ হওয়ার শিক্ষাই সিয়াম ফ্রান্সে একটি সর্বজন গ্রহণযোগ্য ‘বাংলাদেশ সমিতি’র তাগিদ, একটি প্রস্তাবনা শিশু কিশোরদের নানা ইভেন্ট নিয়ে ইপিএস কমিউনিটি ফ্রান্সের স্বাধীনতা দিবস পালন

বিধিনিষেধের পর রেস্তোরাঁ চালু হলেও জার্মান প্রবাসীদের কাজ হারানোর শংকা

  • আপডেট সময় ১০:৪২:১৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৪ মে ২০২০
  • ১৭৪ বার পড়া হয়েছে

Warning: Attempt to read property "post_excerpt" on null in /home/u305720254/domains/francedorpan.com/public_html/wp-content/themes/newspaper-pro/template-parts/common/single_two.php on line 117


জার্মানী প্রতিনিধি- জার্মানীতে করোনার সংকট কাটিয়ে খুলেছে বিভিন্ন বিপনি বিতান, পর্যটন স্থান ও ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তবে শিথিলতার মধ্যে আবারো বাড়তে শুরু করেছে করোনার সংক্রমণও। গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু হয়েছে কমপক্ষে ৯০ জনেরও বেশী মানুষের, আক্রান্তের সংখ্যা ৯০০ জনেরো বেশী।
এদিকে গত কয়েক সপ্তাহধরে করোনায় বিপর্যস্ত পৃথিবীর অন্যতম সমৃদ্ধশালী দেশ জার্মানীর অর্থনীতিও। মের্কেল সরকার সাধারণ মানুষকে সাহায্য ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে হাজার হাজার কোটি টাকা প্রণোদনা দিলেও গত ৮ সপ্তাহের বেশী লকডাওনে সবকিছু বন্ধ থাকার ফলে বিপর্যয় থেকে বাঁচাতে খুলে দিচ্ছে সকল দোকান ও রেস্টুরেন্ট। এতে আশার আলো দেখছেন এই খাতে কাজ করতে থাকা প্রবাসীরা। তবে রেস্তোরাঁ খুলে দিলেও সবাই কাজের সুযোগ পাবেননা বলে জানান প্রবাসী সুর্য কান্তি ঘোষ। তিনি আরো জানান দূরত্ব বজায় রাখার পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি মেনে ও মাস্ক পরিধান করে খুব কম সংখ্যক গ্রাহকই রেস্তোরাঁয় ঢুকতে পারবেন। এতে কাষ্টমার কমে যাওয়ার সম্ভাবনা বহুগুন। এসব কারনে কাস্টমার কমে গেলে লোকবলের অতটা প্রয়োজন পড়বেনা জানান তিনি। এতে অনেকেই আর আগের মত কাজ পাবেননা বলে জানান তিনি। অনেকেই হারাতে পারেন চাকরীও। অন্যদিকে সংক্রমণের মাত্রা বিবেচনায় লকডাওন শিথির করার মেরকেল প্রশাসনের পরিকল্পনায় স্থানীয় জনগণসহ প্রবাসীরা মনে করছেন করোনার লকডাওন পুরোপুরি উঠিয়ে দেয়া না হলে মুখ থুবড়ে পড়তে পারে অর্থনীতি। সেই সাথে কর্মহীন হতে পারে হাজারো মানুষ। তবে জার্মানীতে এখন পর্যন্ত ৩৪ জনের মত প্রবাসী আক্রান্ত হলেও মৃত্যু বরণ করেনি কোন প্রবাসী। এদিকে জার্মানী জুড়ে মৃতের সংখা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭৭৫০ জন।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

লক ডাউন পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবেলায় ফ্রান্সে চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি

যুক্তরাজ্যে করোনার মধ্যেই শিশুদের মাঝে নতুন রোগের হানা

তরুণ উদ্যোক্তা মাসুদ মিয়া-আয়ুব হাসানের যৌথ প্রয়াসের প্রতিষ্ঠান পিংক সিটি

বিধিনিষেধের পর রেস্তোরাঁ চালু হলেও জার্মান প্রবাসীদের কাজ হারানোর শংকা

আপডেট সময় ১০:৪২:১৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৪ মে ২০২০


জার্মানী প্রতিনিধি- জার্মানীতে করোনার সংকট কাটিয়ে খুলেছে বিভিন্ন বিপনি বিতান, পর্যটন স্থান ও ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তবে শিথিলতার মধ্যে আবারো বাড়তে শুরু করেছে করোনার সংক্রমণও। গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু হয়েছে কমপক্ষে ৯০ জনেরও বেশী মানুষের, আক্রান্তের সংখ্যা ৯০০ জনেরো বেশী।
এদিকে গত কয়েক সপ্তাহধরে করোনায় বিপর্যস্ত পৃথিবীর অন্যতম সমৃদ্ধশালী দেশ জার্মানীর অর্থনীতিও। মের্কেল সরকার সাধারণ মানুষকে সাহায্য ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে হাজার হাজার কোটি টাকা প্রণোদনা দিলেও গত ৮ সপ্তাহের বেশী লকডাওনে সবকিছু বন্ধ থাকার ফলে বিপর্যয় থেকে বাঁচাতে খুলে দিচ্ছে সকল দোকান ও রেস্টুরেন্ট। এতে আশার আলো দেখছেন এই খাতে কাজ করতে থাকা প্রবাসীরা। তবে রেস্তোরাঁ খুলে দিলেও সবাই কাজের সুযোগ পাবেননা বলে জানান প্রবাসী সুর্য কান্তি ঘোষ। তিনি আরো জানান দূরত্ব বজায় রাখার পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি মেনে ও মাস্ক পরিধান করে খুব কম সংখ্যক গ্রাহকই রেস্তোরাঁয় ঢুকতে পারবেন। এতে কাষ্টমার কমে যাওয়ার সম্ভাবনা বহুগুন। এসব কারনে কাস্টমার কমে গেলে লোকবলের অতটা প্রয়োজন পড়বেনা জানান তিনি। এতে অনেকেই আর আগের মত কাজ পাবেননা বলে জানান তিনি। অনেকেই হারাতে পারেন চাকরীও। অন্যদিকে সংক্রমণের মাত্রা বিবেচনায় লকডাওন শিথির করার মেরকেল প্রশাসনের পরিকল্পনায় স্থানীয় জনগণসহ প্রবাসীরা মনে করছেন করোনার লকডাওন পুরোপুরি উঠিয়ে দেয়া না হলে মুখ থুবড়ে পড়তে পারে অর্থনীতি। সেই সাথে কর্মহীন হতে পারে হাজারো মানুষ। তবে জার্মানীতে এখন পর্যন্ত ৩৪ জনের মত প্রবাসী আক্রান্ত হলেও মৃত্যু বরণ করেনি কোন প্রবাসী। এদিকে জার্মানী জুড়ে মৃতের সংখা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭৭৫০ জন।