ঢাকা ০৯:১৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
ইতালির আরেচ্ছোতে বর্ণাঢ্য একুশে মেলা: মুসলিম কমিউনিটির কবরস্থান বাস্তবায়নের দাবী ফিলিস্তিনিদের পাশে দাঁড়াবে বাংলাদেশ দারিদ্র বিমোচন ফাউন্ডেশন: ফিলিস্তিন ও বাংলাদেশ দূতাবাসে বিশেষ বৈঠক মামুন হাওলাদার প্রবাসে বাংলার সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য ধরে রাখার লক্ষ্যে রোমে বৃহত্তম ঢাকাবাসীর পিঠা উৎসব নতুন তত্ত্ব ও জ্ঞান সৃষ্টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল উদ্দেশ্যঃ ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক ফ্রান্স দর্পণ পত্রিকার সম্পাদকের ভাইয়ের মৃত্যুতে প্যারিসে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত ইপিএস কমিউনিটি ইন ফ্রান্স এর উদ্যোগে মহান বিজয় দিবস পালিত গ্লোবাল জালালাবাদ এসোসিয়েশন ফ্রান্সের নবগঠিত কমিটির আত্মপ্রকাশ ফরাসি নাট্যমঞ্চে বাংলাদেশি শোয়েব বালাগঞ্জে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত রুপালী ব্যাংক লিমিটেড সুলতানপুর শাখার উদ্যোগে প্রকাশ্যে কৃষি ও পল্লী ঋণ বিতরণ অনুষ্ঠিত

বুলগেরিয়ায় এক সড়ক দুর্ঘটনায় ৩ মন্ত্রী বরখাস্ত

  • আপডেট সময় ০৪:৩৫:৫৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩১ অগাস্ট ২০১৮
  • ১৯২ বার পড়া হয়েছে

মাত্র একটি সড়ক দুর্ঘটনার প্রেক্ষিতে বরখাস্ত হয়েছেন বুলগেরিয়ার তিন জন প্রভাবশালী মন্ত্রী। শুক্রবার দেশটির উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় ভোগ শহরে দুর্ঘটনার শিকার হয় একটি বাস। এতে প্রায় ১৭ ব্যক্তি নিহত হন। ভয়াবহ এ দুর্ঘনায় সড়ক যোগাযোগ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীদের ওপর বেজায় চটেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী বয়কো বরিসভ। এর প্রেক্ষিতে সড়ক মন্ত্রী ইভলো মস্কোভস্কি, আঞ্চলিক উন্নয়ন মন্ত্রী নিকোলে নানকভ ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ভ্যালেনটিন রাদেভকে একসঙ্গে বরখাস্ত করেন তিনি। কারণ হিসেবে বলেন, রাজনীতিবিদদের সড়ক দুর্ঘটনার দায় নেয়া উচিত।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, শুক্রবারের দুর্ঘটনায় ব্যাপক প্রাণহানি নিয়ে পূর্ব ইউরোপের দেশটিতে নিন্দার ঝড় বইছে। নড়েচড়ে বসেছে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষ। প্রধানমন্ত্রী তার মন্ত্রীসভার তিনজন মন্ত্রীকে বরখাস্ত করেছেন। বরখাস্তকৃত মন্ত্রীরাও দুর্ঘটনার দায় স্বীকার করে দু:খ প্রকাশ করেছেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ভ্যালেনটিন রাদেভ বলেন, আমরা দুর্ঘটনার রাজনৈতিক দায় স্বীকার করে নিয়েছি। এজন্য আমরা পদ ছেড়ে দিচ্ছি। অবশ্যই আমরা এ ধরণের দুর্ঘটনা প্রতিরোধের মতো ব্যবস্থা করতে পারি নি। রাদেভ যখন সাংবাদিকদের এসব কথা বলছিলেন, বরখাস্তকৃত আরেক মন্ত্রী নিকোলে নানকভও তার সঙ্গে ছিলেন। তিনি রাদেভের বক্তব্যকে সমর্থন করেন।

উল্লেখ্য, গত শনিবারেও এ অঞ্চলে একটি বাস দুর্ঘটনার শিকার হয়। বাসটি পাশ্ববর্তী খাদে পড়ে গেলে প্রায় দুই ডজন মানুষ আহত হন। এ দুর্ঘটনার প্রতিবাদে শনিবার থেকে প্রতিদিনই রাজপথে বিক্ষোভ দেখিয়ে আসছে বুলগেরিয়ার মানুষ। বিক্ষোভকারীদের দাবি, কর্তৃপক্ষ সড়ক মেরামতের বিষয়টি যথাযথ আমলে নেয়নি।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

লক ডাউন পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবেলায় ফ্রান্সে চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি

যুক্তরাজ্যে করোনার মধ্যেই শিশুদের মাঝে নতুন রোগের হানা

ইতালির আরেচ্ছোতে বর্ণাঢ্য একুশে মেলা: মুসলিম কমিউনিটির কবরস্থান বাস্তবায়নের দাবী

বুলগেরিয়ায় এক সড়ক দুর্ঘটনায় ৩ মন্ত্রী বরখাস্ত

আপডেট সময় ০৪:৩৫:৫৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩১ অগাস্ট ২০১৮

মাত্র একটি সড়ক দুর্ঘটনার প্রেক্ষিতে বরখাস্ত হয়েছেন বুলগেরিয়ার তিন জন প্রভাবশালী মন্ত্রী। শুক্রবার দেশটির উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় ভোগ শহরে দুর্ঘটনার শিকার হয় একটি বাস। এতে প্রায় ১৭ ব্যক্তি নিহত হন। ভয়াবহ এ দুর্ঘনায় সড়ক যোগাযোগ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীদের ওপর বেজায় চটেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী বয়কো বরিসভ। এর প্রেক্ষিতে সড়ক মন্ত্রী ইভলো মস্কোভস্কি, আঞ্চলিক উন্নয়ন মন্ত্রী নিকোলে নানকভ ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ভ্যালেনটিন রাদেভকে একসঙ্গে বরখাস্ত করেন তিনি। কারণ হিসেবে বলেন, রাজনীতিবিদদের সড়ক দুর্ঘটনার দায় নেয়া উচিত।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, শুক্রবারের দুর্ঘটনায় ব্যাপক প্রাণহানি নিয়ে পূর্ব ইউরোপের দেশটিতে নিন্দার ঝড় বইছে। নড়েচড়ে বসেছে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষ। প্রধানমন্ত্রী তার মন্ত্রীসভার তিনজন মন্ত্রীকে বরখাস্ত করেছেন। বরখাস্তকৃত মন্ত্রীরাও দুর্ঘটনার দায় স্বীকার করে দু:খ প্রকাশ করেছেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ভ্যালেনটিন রাদেভ বলেন, আমরা দুর্ঘটনার রাজনৈতিক দায় স্বীকার করে নিয়েছি। এজন্য আমরা পদ ছেড়ে দিচ্ছি। অবশ্যই আমরা এ ধরণের দুর্ঘটনা প্রতিরোধের মতো ব্যবস্থা করতে পারি নি। রাদেভ যখন সাংবাদিকদের এসব কথা বলছিলেন, বরখাস্তকৃত আরেক মন্ত্রী নিকোলে নানকভও তার সঙ্গে ছিলেন। তিনি রাদেভের বক্তব্যকে সমর্থন করেন।

উল্লেখ্য, গত শনিবারেও এ অঞ্চলে একটি বাস দুর্ঘটনার শিকার হয়। বাসটি পাশ্ববর্তী খাদে পড়ে গেলে প্রায় দুই ডজন মানুষ আহত হন। এ দুর্ঘটনার প্রতিবাদে শনিবার থেকে প্রতিদিনই রাজপথে বিক্ষোভ দেখিয়ে আসছে বুলগেরিয়ার মানুষ। বিক্ষোভকারীদের দাবি, কর্তৃপক্ষ সড়ক মেরামতের বিষয়টি যথাযথ আমলে নেয়নি।