ঢাকা ১১:১১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
প্রবাসে বাংলার সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য ধরে রাখার লক্ষ্যে রোমে বৃহত্তম ঢাকাবাসীর পিঠা উৎসব নতুন তত্ত্ব ও জ্ঞান সৃষ্টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল উদ্দেশ্যঃ ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক ফ্রান্স দর্পণ পত্রিকার সম্পাদকের ভাইয়ের মৃত্যুতে প্যারিসে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত ইপিএস কমিউনিটি ইন ফ্রান্স এর উদ্যোগে মহান বিজয় দিবস পালিত গ্লোবাল জালালাবাদ এসোসিয়েশন ফ্রান্সের নবগঠিত কমিটির আত্মপ্রকাশ ফরাসি নাট্যমঞ্চে বাংলাদেশি শোয়েব বালাগঞ্জে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত রুপালী ব্যাংক লিমিটেড সুলতানপুর শাখার উদ্যোগে প্রকাশ্যে কৃষি ও পল্লী ঋণ বিতরণ অনুষ্ঠিত সাজাপ্রাপ্ত এক আসামীকে গ্রেফতার করেছে বালাগঞ্জ থানায় পুলিশ গহরপুরে কৃতি ফুটবলার লায়েক আহমদ সংবর্ধিত; জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে লেখাপড়ার গুরুত্ব অনুভব করেছি

মুন্সিগন্জ বিক্রমপুর সমিতি ইতালীর ভিন্নধর্মী আয়োজনে বার্ষিক বনভোজন অনুষ্ঠিত

  • আপডেট সময় ১২:১১:১৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৫ জুলাই ২০১৮
  • ১৭৫ বার পড়া হয়েছে

মিনহাজ হোসেন ইতালীঃ ইতালীর স্হানীয় অধিবাসীদের মতো প্রবাসীরাও অধির আগ্রহে অপেক্ষা করতে থাকেন গ্রীষ্মের (সামার) জন্য। দীর্ঘ শীতের জীর্ণতা ও নিরবতা কাটিয়ে প্রকৃতি যেমন এসময় নিজেকে মেলে ধরে, ঠিক তেমনি প্রবাসীরাও মেতে ওঠেন বিভিন্ন আনন্দ আয়োজনে। এরই ধারাবাহিকতায় ইতালীতে বসবাসরত মুন্সিগন্জ বিক্রমপুর বাসী মেতে উঠেছিলেন বনভোজন আনন্দ ভ্রমণে। মুন্সিগন্জ বিক্রমপুর সমিতি, ইতালীল উদ্যোগে গত রবিবার (২২-৭-২০১৮) সমুদ্র সৈকত দবিল ত্রবিল সুখ মেখ স্হানে অনুষ্ঠিত হয় বনভোজন। সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়ায় এতে প্রবাসীরা আনন্দে দিনটি অতিবাহিত করেন। রোমের ভিত্তোরিও, তুসকোলানা ও তরপিনাত্তারা থেকে ৩টি বাস সকাল ১০ ঘটিকায় বাস যোগে রওয়ানা হয়ে প্রায় ৩ ঘন্টা পরে গন্তব্য স্হলে পৌছান। যাত্রার শুরুতে অংশগ্রহণকারী সকলকে শুভেচ্ছা ও স্বাগত জানান সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি দেলওয়ার হোসেন। পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করে যাত্রা শুরু হয়। লং জার্নির সময় বাসে মাইক্রফোনের সাহায্যের সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন রনী । গান, কৌতুক, রম্য ধাঁধা পরিবেশন করে মাতিয়ে রাখেন মুন্সিগন্জ বিক্রমপুরের নেতৃবৃন্দরা। সমিতির সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন রনি তাঁর সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে অংশ গ্রহণকারী সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, প্রবাসী মুন্সিগন্জ বিক্রমপুরবাসীর মধ্যে সেতু বন্ধনের উদ্দেশ্যে এই সুন্দর আয়োজন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুন্সীগঞ্জ-বিক্রমপুর সমিতির অন্যতম উপদেষ্টা হাবীব চৌধুরী, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও সমিতির উপদেষ্ঠা আইয়ুব খান প্রিন্স, সাবেক সভাপতি ও উপদেষ্ঠা সোয়েব দেওয়ান , জামান মুক্তার, উপদেষ্টা জহিরুল ইসলাম,বৃহত্তর ঢাকা সমিতির সোহেল খান, বৃহত্তর ঢাকা যুব সংঘের সাধারণ সম্পাদক শেমল খান সহ প্রমুখ। প্রধান অতিথি হাবিব চৌধুরী তিনি প্রবাসে বেড়ে ওঠা নতুন প্রজন্মকে আমাদের কৃষ্টি কালচারের সাথে পরিচয় করানোর গুরুত্বারোপ করেন এবং দেশ ও প্রবাসে মুন্সিগন্জ বিক্রমপুরবাসীকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহবান জানান। এছাড়া সমিতির বিভিন্ন কর্মসূচি তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন সমিতির প্রতিষ্ঠাতা যুগ্ন আহবায়ক জোবায়ের আহমেদ রিপন, সহ সভাপতি কামরুল হাসান, আলম মাহমুদ, মিজান জামান, সহ সভাপতি উম্মেহানি প্রিন্স, যুগ্ন সম্পাদক এলিন আহমেদ মিঠু ও আমিনুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক জামিল আহমেদ জাকির, মিজানুর রহমান রফিক, মুন্সীগঞ্জ- বিক্রমপুর যুব পরিষদ ইতালির সভাপতি হাবীবুর রহমান নাজমুল সদস্য জাহিদ হাসান খোকন, জলিল দেওয়ান, ইয়াসমিন আক্তার নূপুর, মলি মুক্তার, জালাল হালদার, মোস্তাক হোসেন, মাহবুব আলম প্রমূখ। প্রবাসে ব্যাস্ত জীবনের ক্লান্তি দূর করে প্রশান্তি নিতে এই সমুদ্র ভ্রমন ও বনভোজনে উপস্থিত হয়েছিলেন দলমত নির্বিশেষে বহু প্রবাসীরা। এতে অনেক মহিলা এবং শিশুরাও অংশ নেন। উল্লেখ্য ইউরোপের মাটিতে জীবনের প্রয়োজনে বসবাস করলেও মন কাধেঁ সর্বদা জন্মভুমি বাংলাদেশের মা,মাটি ও মানুষের জন্য। ভ্রমন পিপাসু অংশগ্রহণকারীরা সমুদ্র সৈকতে দুপুরের খাওয়া দাওয়া শেষ করেন। হরেক পদের মুখরোচক বাংগালী খাবার খেয়ে সবাই তৃপ্তির ঢেকুর তুলতে থাকেন। যারা রান্না করেছেন, তাদের ভূয়সী প্রশংসা করে ধন্যবাদ জানান। খাওয়া শেষে অনেকেই আনন্দ মনে মুঠোফোনের সাহায্যে বারবার “সেলফী ” তুলতে ব্যাস্ত হয়ে পড়েন। এরপর শুরু হয় লবনাক্ত পানিতে সাতার কাটা, হৈ হুল্লোড়, হ্যান্ডবল খেলা, ফুটবল ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।পানিতে হ্যান্ডবল খেলায় দুভাগে বিভক্ত হয়ে খেলেছেন গেন্জি গ্রুপ ও উদ্লা (গেন্জি ছাড়া) গ্রুপ। ফুটবল খেলা হয় বালুতে।দিনব্যাপী সমুদ্র সৈকত ভ্রমন ও বনভোজনের আনন্দ উপভোগ করতে করতে সন্ধ্যা ঘনিয়ে আসে। প্রবাসীরা যখন সুখের দোলায় উক্ত মনোরম স্থান ত্যাগ করেন। পরিশেষে সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি দেলোয়ার হোসেন ও সাধারন সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন রনী আমন্ত্রিত প্রধান অতিথি, বিশেষ অতিথি সহ অংশগ্রহণকারী সকলে এবং বিভিন্ন ভাবে যারা সহযোগিতা করেছেন ও বিক্রমপুর সমিতির সাবেক ও বর্তমান কর্মকর্তা, বনভোজনে আগত ইতালিস্থ সকল বিক্রমপুর বাসী সহ সকলকে ধন্যবাদ জানান ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

লক ডাউন পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবেলায় ফ্রান্সে চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি

যুক্তরাজ্যে করোনার মধ্যেই শিশুদের মাঝে নতুন রোগের হানা

প্রবাসে বাংলার সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য ধরে রাখার লক্ষ্যে রোমে বৃহত্তম ঢাকাবাসীর পিঠা উৎসব

মুন্সিগন্জ বিক্রমপুর সমিতি ইতালীর ভিন্নধর্মী আয়োজনে বার্ষিক বনভোজন অনুষ্ঠিত

আপডেট সময় ১২:১১:১৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৫ জুলাই ২০১৮

মিনহাজ হোসেন ইতালীঃ ইতালীর স্হানীয় অধিবাসীদের মতো প্রবাসীরাও অধির আগ্রহে অপেক্ষা করতে থাকেন গ্রীষ্মের (সামার) জন্য। দীর্ঘ শীতের জীর্ণতা ও নিরবতা কাটিয়ে প্রকৃতি যেমন এসময় নিজেকে মেলে ধরে, ঠিক তেমনি প্রবাসীরাও মেতে ওঠেন বিভিন্ন আনন্দ আয়োজনে। এরই ধারাবাহিকতায় ইতালীতে বসবাসরত মুন্সিগন্জ বিক্রমপুর বাসী মেতে উঠেছিলেন বনভোজন আনন্দ ভ্রমণে। মুন্সিগন্জ বিক্রমপুর সমিতি, ইতালীল উদ্যোগে গত রবিবার (২২-৭-২০১৮) সমুদ্র সৈকত দবিল ত্রবিল সুখ মেখ স্হানে অনুষ্ঠিত হয় বনভোজন। সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়ায় এতে প্রবাসীরা আনন্দে দিনটি অতিবাহিত করেন। রোমের ভিত্তোরিও, তুসকোলানা ও তরপিনাত্তারা থেকে ৩টি বাস সকাল ১০ ঘটিকায় বাস যোগে রওয়ানা হয়ে প্রায় ৩ ঘন্টা পরে গন্তব্য স্হলে পৌছান। যাত্রার শুরুতে অংশগ্রহণকারী সকলকে শুভেচ্ছা ও স্বাগত জানান সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি দেলওয়ার হোসেন। পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করে যাত্রা শুরু হয়। লং জার্নির সময় বাসে মাইক্রফোনের সাহায্যের সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন রনী । গান, কৌতুক, রম্য ধাঁধা পরিবেশন করে মাতিয়ে রাখেন মুন্সিগন্জ বিক্রমপুরের নেতৃবৃন্দরা। সমিতির সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন রনি তাঁর সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে অংশ গ্রহণকারী সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, প্রবাসী মুন্সিগন্জ বিক্রমপুরবাসীর মধ্যে সেতু বন্ধনের উদ্দেশ্যে এই সুন্দর আয়োজন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুন্সীগঞ্জ-বিক্রমপুর সমিতির অন্যতম উপদেষ্টা হাবীব চৌধুরী, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও সমিতির উপদেষ্ঠা আইয়ুব খান প্রিন্স, সাবেক সভাপতি ও উপদেষ্ঠা সোয়েব দেওয়ান , জামান মুক্তার, উপদেষ্টা জহিরুল ইসলাম,বৃহত্তর ঢাকা সমিতির সোহেল খান, বৃহত্তর ঢাকা যুব সংঘের সাধারণ সম্পাদক শেমল খান সহ প্রমুখ। প্রধান অতিথি হাবিব চৌধুরী তিনি প্রবাসে বেড়ে ওঠা নতুন প্রজন্মকে আমাদের কৃষ্টি কালচারের সাথে পরিচয় করানোর গুরুত্বারোপ করেন এবং দেশ ও প্রবাসে মুন্সিগন্জ বিক্রমপুরবাসীকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহবান জানান। এছাড়া সমিতির বিভিন্ন কর্মসূচি তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন সমিতির প্রতিষ্ঠাতা যুগ্ন আহবায়ক জোবায়ের আহমেদ রিপন, সহ সভাপতি কামরুল হাসান, আলম মাহমুদ, মিজান জামান, সহ সভাপতি উম্মেহানি প্রিন্স, যুগ্ন সম্পাদক এলিন আহমেদ মিঠু ও আমিনুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক জামিল আহমেদ জাকির, মিজানুর রহমান রফিক, মুন্সীগঞ্জ- বিক্রমপুর যুব পরিষদ ইতালির সভাপতি হাবীবুর রহমান নাজমুল সদস্য জাহিদ হাসান খোকন, জলিল দেওয়ান, ইয়াসমিন আক্তার নূপুর, মলি মুক্তার, জালাল হালদার, মোস্তাক হোসেন, মাহবুব আলম প্রমূখ। প্রবাসে ব্যাস্ত জীবনের ক্লান্তি দূর করে প্রশান্তি নিতে এই সমুদ্র ভ্রমন ও বনভোজনে উপস্থিত হয়েছিলেন দলমত নির্বিশেষে বহু প্রবাসীরা। এতে অনেক মহিলা এবং শিশুরাও অংশ নেন। উল্লেখ্য ইউরোপের মাটিতে জীবনের প্রয়োজনে বসবাস করলেও মন কাধেঁ সর্বদা জন্মভুমি বাংলাদেশের মা,মাটি ও মানুষের জন্য। ভ্রমন পিপাসু অংশগ্রহণকারীরা সমুদ্র সৈকতে দুপুরের খাওয়া দাওয়া শেষ করেন। হরেক পদের মুখরোচক বাংগালী খাবার খেয়ে সবাই তৃপ্তির ঢেকুর তুলতে থাকেন। যারা রান্না করেছেন, তাদের ভূয়সী প্রশংসা করে ধন্যবাদ জানান। খাওয়া শেষে অনেকেই আনন্দ মনে মুঠোফোনের সাহায্যে বারবার “সেলফী ” তুলতে ব্যাস্ত হয়ে পড়েন। এরপর শুরু হয় লবনাক্ত পানিতে সাতার কাটা, হৈ হুল্লোড়, হ্যান্ডবল খেলা, ফুটবল ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।পানিতে হ্যান্ডবল খেলায় দুভাগে বিভক্ত হয়ে খেলেছেন গেন্জি গ্রুপ ও উদ্লা (গেন্জি ছাড়া) গ্রুপ। ফুটবল খেলা হয় বালুতে।দিনব্যাপী সমুদ্র সৈকত ভ্রমন ও বনভোজনের আনন্দ উপভোগ করতে করতে সন্ধ্যা ঘনিয়ে আসে। প্রবাসীরা যখন সুখের দোলায় উক্ত মনোরম স্থান ত্যাগ করেন। পরিশেষে সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি দেলোয়ার হোসেন ও সাধারন সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন রনী আমন্ত্রিত প্রধান অতিথি, বিশেষ অতিথি সহ অংশগ্রহণকারী সকলে এবং বিভিন্ন ভাবে যারা সহযোগিতা করেছেন ও বিক্রমপুর সমিতির সাবেক ও বর্তমান কর্মকর্তা, বনভোজনে আগত ইতালিস্থ সকল বিক্রমপুর বাসী সহ সকলকে ধন্যবাদ জানান ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।