ঢাকা ০৬:৩৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
তরুণ উদ্যোক্তা মাসুদ মিয়া-আয়ুব হাসানের যৌথ প্রয়াসের প্রতিষ্ঠান পিংক সিটি নিউ স্টার ফুটবল ক্লাব রতনপুরের সহসভাপতি সাইফুল ইসলাম সংবর্ধিত বালাগঞ্জে শান্তিপুর্ণভাবে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন সম্পন্ন : চমক দেখিয়ে আনহার মিয়া চেয়ারম্যান নির্বাচিত ফ্রান্সে বাংলাদেশি অভিবাসীদের জীবনমান উন্নয়নে ফরাসি জাতীয়তা বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত প্যারিসে Point d’Aide – এইড পয়েন্ট এর নতুন অফিসের উদ্বোধন তরুণ সাহিত্যিক সাদাত হোসাইনকে প্যারিসে সংবর্ধনা দিলো ফ্রান্সপ্রবাসী বাংলাদেশীরা গাজীপুর জেলা সমিতি,ফ্রান্স’র দ্বি বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত : ফারুক খান সভাপতি, জুয়েল সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত কেবল উপবাসের নামই সিয়াম নয়, প্রকৃত মানুষ হওয়ার শিক্ষাই সিয়াম ফ্রান্সে একটি সর্বজন গ্রহণযোগ্য ‘বাংলাদেশ সমিতি’র তাগিদ, একটি প্রস্তাবনা শিশু কিশোরদের নানা ইভেন্ট নিয়ে ইপিএস কমিউনিটি ফ্রান্সের স্বাধীনতা দিবস পালন

যুক্তরাষ্ট্র মাস্ক পরিধানে শিথিলতা আনছে

  • আপডেট সময় ০১:২৭:০১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২২
  • ৮১ বার পড়া হয়েছে

Warning: Attempt to read property "post_excerpt" on null in /home/u305720254/domains/francedorpan.com/public_html/wp-content/themes/newspaper-pro/template-parts/common/single_two.php on line 117

হাকিকুল ইসলাম খোকন ,যুক্তরাষ্ট্র সিনিয়র প্রতিনিধিঃমার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বেশ কয়েকটি রাজ্য মহামারি করোনা ভাইরাস ঠেকাতে বাধ্যতামূলকভাবে চালু রাখা মাস্ক পরার বিষয়ে শিথিলতা আনতে শুরু করেছে। একেক করে আধা ডজনের অধিক রাজ্য বলছে তারা মাস্ক ম্যান্ডেট তুলে দিতে চায়। নতুন তালিকায় যোগ হচ্ছে- নিউইয়র্ক, ম্যাসাচুসেটস রোড আয়ল্যান্ড। যদিও আগেই তা বাতিল করেছিল নিউজার্সি, পেনসিলভানিয়া। এবার কানেটিকাটও একই পথে হাঁটছে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কোভিডের শক্তিশালী ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের তাণ্ডব কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসায় মাস্ক পরিধানে বাধ্যবাধকতা তুলে নেওয়ার পরিকল্পনা করছেন এসব রাজ্যের গভর্নররা।

এ দিকে প্রাণঘাতী ভাইরাসটির সংক্রমণে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ রাজ্যের তালিকায় এখনো রয়ে গেছে- নিউইয়র্ক। সেখানকার গভর্নর বলছেন, করোনা প্রতিরোধী টিকা নেওয়া থাকলে চলতি সপ্তাহের পর থেকে অফিস বা বাসা বাড়িতে মাস্ক পরার বিষয়ে আর কোনো বাধ্যবাধকতা থাকবে না।

এমনকি ম্যাসাচুসেটসের গভর্নর মনে করেন, স্কুলে মাস্ক পরার বাধ্যবাধকতা নতুন করে আর বাড়ানো হবে না। করোনায় শনাক্তের হার কমে আসার পাশাপাশি হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা হ্রাস পাওয়ায় সিদ্ধান্তটি নিতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন রাজ্যে।

অন্য দিকে কোভিড ব্যবস্থাপনা নিয়ে নতুন নির্দেশনা দেওয়ার জন্য জো বাইডেন প্রশাসনের উপর চাপ রয়েছে। যার কারণে বর্তমান করোনা অবস্থায় বিবেচনা করে শিথিলতার কোন পথে হাঁটবে যুক্তরাষ্ট্র? এই নিয়ে জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা হোয়াইট হাউসে নিয়মিত আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন। উল্লেখ্য, বিশ্বজুড়ে মহামারি করোনা ভাইরাসের থাবায় এখন পর্যন্ত প্রায় ৫৮ লাখ মানুষ মারা গেছেন। তার মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যু হয়েছে নয় লাখ ৩৫ হাজারের বেশি। মার্কিন ভূখণ্ডে ৬৪.২ শতাংশ মানুষ এরই মধ্যে পুরোপুরি কোভিড প্রতিরোধী টিকার আওতায় এসেছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে মাস্ক না পরার সিদ্ধান্ত ভালো হবে কি-না এই নিয়ে দেশটির জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মধ্যে ভিন্নমত রয়েছে।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

লক ডাউন পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবেলায় ফ্রান্সে চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি

যুক্তরাজ্যে করোনার মধ্যেই শিশুদের মাঝে নতুন রোগের হানা

তরুণ উদ্যোক্তা মাসুদ মিয়া-আয়ুব হাসানের যৌথ প্রয়াসের প্রতিষ্ঠান পিংক সিটি

যুক্তরাষ্ট্র মাস্ক পরিধানে শিথিলতা আনছে

আপডেট সময় ০১:২৭:০১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২২

হাকিকুল ইসলাম খোকন ,যুক্তরাষ্ট্র সিনিয়র প্রতিনিধিঃমার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বেশ কয়েকটি রাজ্য মহামারি করোনা ভাইরাস ঠেকাতে বাধ্যতামূলকভাবে চালু রাখা মাস্ক পরার বিষয়ে শিথিলতা আনতে শুরু করেছে। একেক করে আধা ডজনের অধিক রাজ্য বলছে তারা মাস্ক ম্যান্ডেট তুলে দিতে চায়। নতুন তালিকায় যোগ হচ্ছে- নিউইয়র্ক, ম্যাসাচুসেটস রোড আয়ল্যান্ড। যদিও আগেই তা বাতিল করেছিল নিউজার্সি, পেনসিলভানিয়া। এবার কানেটিকাটও একই পথে হাঁটছে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কোভিডের শক্তিশালী ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের তাণ্ডব কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসায় মাস্ক পরিধানে বাধ্যবাধকতা তুলে নেওয়ার পরিকল্পনা করছেন এসব রাজ্যের গভর্নররা।

এ দিকে প্রাণঘাতী ভাইরাসটির সংক্রমণে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ রাজ্যের তালিকায় এখনো রয়ে গেছে- নিউইয়র্ক। সেখানকার গভর্নর বলছেন, করোনা প্রতিরোধী টিকা নেওয়া থাকলে চলতি সপ্তাহের পর থেকে অফিস বা বাসা বাড়িতে মাস্ক পরার বিষয়ে আর কোনো বাধ্যবাধকতা থাকবে না।

এমনকি ম্যাসাচুসেটসের গভর্নর মনে করেন, স্কুলে মাস্ক পরার বাধ্যবাধকতা নতুন করে আর বাড়ানো হবে না। করোনায় শনাক্তের হার কমে আসার পাশাপাশি হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা হ্রাস পাওয়ায় সিদ্ধান্তটি নিতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন রাজ্যে।

অন্য দিকে কোভিড ব্যবস্থাপনা নিয়ে নতুন নির্দেশনা দেওয়ার জন্য জো বাইডেন প্রশাসনের উপর চাপ রয়েছে। যার কারণে বর্তমান করোনা অবস্থায় বিবেচনা করে শিথিলতার কোন পথে হাঁটবে যুক্তরাষ্ট্র? এই নিয়ে জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা হোয়াইট হাউসে নিয়মিত আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন। উল্লেখ্য, বিশ্বজুড়ে মহামারি করোনা ভাইরাসের থাবায় এখন পর্যন্ত প্রায় ৫৮ লাখ মানুষ মারা গেছেন। তার মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যু হয়েছে নয় লাখ ৩৫ হাজারের বেশি। মার্কিন ভূখণ্ডে ৬৪.২ শতাংশ মানুষ এরই মধ্যে পুরোপুরি কোভিড প্রতিরোধী টিকার আওতায় এসেছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে মাস্ক না পরার সিদ্ধান্ত ভালো হবে কি-না এই নিয়ে দেশটির জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মধ্যে ভিন্নমত রয়েছে।