ঢাকা ১১:২০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১২ মে ২০২৪, ২৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
প্যারিসে Point d’Aide – এইড পয়েন্ট এর নতুন অফিসের উদ্বোধন তরুণ সাহিত্যিক সাদাত হোসাইনকে প্যারিসে সংবর্ধনা দিলো ফ্রান্সপ্রবাসী বাংলাদেশীরা গাজীপুর জেলা সমিতি,ফ্রান্স’র দ্বি বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত : ফারুক খান সভাপতি, জুয়েল সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত কেবল উপবাসের নামই সিয়াম নয়, প্রকৃত মানুষ হওয়ার শিক্ষাই সিয়াম ফ্রান্সে একটি সর্বজন গ্রহণযোগ্য ‘বাংলাদেশ সমিতি’র তাগিদ, একটি প্রস্তাবনা শিশু কিশোরদের নানা ইভেন্ট নিয়ে ইপিএস কমিউনিটি ফ্রান্সের স্বাধীনতা দিবস পালন জালালাবাদ অ্যাসোসিয়েশন ফ্রান্স’র নতুন কমিটির পরিচিতি ও ইফতার প্যারিসে ‘নকশী বাংলা ফাউন্ডেশন সম্মাননা’ পেলেন ফ্রান্স দর্পণ নির্বাহী সম্পাদক ফেরদৌস করিম আখঞ্জী নানা আয়োজনে প্যারিসে সাফের আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালন ‘পাঠশালা’ – ফরাসী ভাষা শিক্ষার স্কুল উদ্বোধন

সাড়ে তিন লাখ অভিবাসী নেবে কানাডা, যেতে পারেন আপনিও

  • আপডেট সময় ০৯:১৩:০০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮
  • ৩৪৭ বার পড়া হয়েছে

Warning: Attempt to read property "post_excerpt" on null in /home/u305720254/domains/francedorpan.com/public_html/wp-content/themes/newspaper-pro/template-parts/common/single_two.php on line 117

অভিবাসীদের স্বর্গরাজ্য হিসেবে খ্যাত কানাডায় আগামী বছরেও তিন লাখ নতুন অভিবাসী নেওয়ার সিদ্ধান্ত বহাল রেখেছে। চলতি বছরে দেশটি ৩ লাখ ৩০ হাজার অভিবাসী নেওয়ার পাশাপাশি আগামী বছরের জন্য নতুন তিন লাখ অভিবাসী নেওয়ার প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে।

মোট তিন ধাপে ৯ লাখ ৮০ হাজার বিদেশি নাগরিককে অভিবাসী হিসেবে গ্রহণ করবে কানাডা। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের অভিবাসনপ্রত্যাশীদের মতো বাংলাদেশিরাও কানাডা সরকারের এমন সুযোগ গ্রহণ করতে পারেন।

ল্যান্ড অব ইমিগ্র্যান্ট নামে খ্যাত উত্তর আমেরিকার এই দেশটিকে বিশ্বের নিরাপদ ও অন্যতম সুখী রাষ্ট্র হিসেবে গণ্য করা হয়। আয়তনের তুলনায় দেশটির জনসংখ্যা খুবই নগণ্য। বর্তমানে ৩ কোটি ৭০ লাখের মতো মানুষ বসবাস করে কানাডায়। মাথাপিছু আয় প্রায় ৫০ হাজারের কাছাকাছি।

জানা যায়, কানাডা সরকার ২০১৭ সালের নভেম্বর মাসে আগামী ৩ বছরে (২০১৮, ২০১৯, ২০২০) ৯ লাখ ৮০ হাজার অভিবাসী নেয়ার ঘোষণা দিয়েছিল। ঘোষণার ধারাবাহিকতা অনুযায়ী কানাডা সরকার ২০১৯ সালে ৩ লাখ ৩০ হাজার অভিবাসী নেবে।

ইকোনমিক প্রোগ্রামের অধীনে ১ লাখ ৯১ হাজার ৬০০ জন, ফেডারেল হাই স্কিলড প্রোগ্রামে ৮১ হাজার ৪০০, আটলান্টিক ইমিগ্রেশন পাইলট প্রোগ্রামে ২ হাজার, ফেয়ার গিভার প্রোগ্রামে ১৪ হাজার, ফেডারেল বিজনেস প্রোগ্রামে ৭০০, প্রভিন্সিয়াল নমিনি প্রোগ্রামে ৬১ হাজার, কুইবেক স্কিলড ওয়ার্কার অ্যান্ড বিজনেস প্রোগ্রামে ৩২ হাজার ৫০০।

এর বাইরে ফ্যামিলি প্রোগ্রামের অধীনে ৮৮ হাজার ৫০০ জন। ফ্যামিলি প্রোগ্রামের সাব ক্যাটাগরি হচ্ছে, স্পাউজ, পার্টনার ও চিলড্রেন প্রোগ্রামে ৬৮ হাজার, প্যারেন্টস ও গ্রান্ড প্যারেন্টস ২০ হাজার ৫০০ জন, রিফিউজি অ্যান্ড প্রোটেক্টেড পারসন প্রোগ্রামে ৪৫ হাজার ৬৩০ জন, হিউম্যানিটেরিয়ান প্রোগ্রামে ৪ হাজার ২৫০ জন।

আগের ঘোষণা অনুযায়ী, ২০২০ সালে কানাডা সরকার ৩ লাখ ৪০ হাজার অভিবাসী নেবে। কানাডার বর্তমান অভিবাসন মন্ত্রী আহমেদ হুসেন ইতিমধ্যে ২০২১ সালে আরও ৩ লাখ ৫০ হাজার অভিবাসী নেওয়ার ব্যাপারে ঘোষণা দিয়েছেন।

কানাডা সরকারের দেওয়া অভিবাসনের এমন লোভনীয় সুযোগ আগ্রহীরা চেষ্টা করতে পারেন। আর এজন্য এখনই নিদিষ্ট শর্তাবলী পূরণ করে আবেদনের জন্য প্রস্তুতি নিতে পারেন।

উৎসঃ আমাদের সময়

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

লক ডাউন পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবেলায় ফ্রান্সে চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি

যুক্তরাজ্যে করোনার মধ্যেই শিশুদের মাঝে নতুন রোগের হানা

প্যারিসে Point d’Aide – এইড পয়েন্ট এর নতুন অফিসের উদ্বোধন

সাড়ে তিন লাখ অভিবাসী নেবে কানাডা, যেতে পারেন আপনিও

আপডেট সময় ০৯:১৩:০০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮

অভিবাসীদের স্বর্গরাজ্য হিসেবে খ্যাত কানাডায় আগামী বছরেও তিন লাখ নতুন অভিবাসী নেওয়ার সিদ্ধান্ত বহাল রেখেছে। চলতি বছরে দেশটি ৩ লাখ ৩০ হাজার অভিবাসী নেওয়ার পাশাপাশি আগামী বছরের জন্য নতুন তিন লাখ অভিবাসী নেওয়ার প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে।

মোট তিন ধাপে ৯ লাখ ৮০ হাজার বিদেশি নাগরিককে অভিবাসী হিসেবে গ্রহণ করবে কানাডা। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের অভিবাসনপ্রত্যাশীদের মতো বাংলাদেশিরাও কানাডা সরকারের এমন সুযোগ গ্রহণ করতে পারেন।

ল্যান্ড অব ইমিগ্র্যান্ট নামে খ্যাত উত্তর আমেরিকার এই দেশটিকে বিশ্বের নিরাপদ ও অন্যতম সুখী রাষ্ট্র হিসেবে গণ্য করা হয়। আয়তনের তুলনায় দেশটির জনসংখ্যা খুবই নগণ্য। বর্তমানে ৩ কোটি ৭০ লাখের মতো মানুষ বসবাস করে কানাডায়। মাথাপিছু আয় প্রায় ৫০ হাজারের কাছাকাছি।

জানা যায়, কানাডা সরকার ২০১৭ সালের নভেম্বর মাসে আগামী ৩ বছরে (২০১৮, ২০১৯, ২০২০) ৯ লাখ ৮০ হাজার অভিবাসী নেয়ার ঘোষণা দিয়েছিল। ঘোষণার ধারাবাহিকতা অনুযায়ী কানাডা সরকার ২০১৯ সালে ৩ লাখ ৩০ হাজার অভিবাসী নেবে।

ইকোনমিক প্রোগ্রামের অধীনে ১ লাখ ৯১ হাজার ৬০০ জন, ফেডারেল হাই স্কিলড প্রোগ্রামে ৮১ হাজার ৪০০, আটলান্টিক ইমিগ্রেশন পাইলট প্রোগ্রামে ২ হাজার, ফেয়ার গিভার প্রোগ্রামে ১৪ হাজার, ফেডারেল বিজনেস প্রোগ্রামে ৭০০, প্রভিন্সিয়াল নমিনি প্রোগ্রামে ৬১ হাজার, কুইবেক স্কিলড ওয়ার্কার অ্যান্ড বিজনেস প্রোগ্রামে ৩২ হাজার ৫০০।

এর বাইরে ফ্যামিলি প্রোগ্রামের অধীনে ৮৮ হাজার ৫০০ জন। ফ্যামিলি প্রোগ্রামের সাব ক্যাটাগরি হচ্ছে, স্পাউজ, পার্টনার ও চিলড্রেন প্রোগ্রামে ৬৮ হাজার, প্যারেন্টস ও গ্রান্ড প্যারেন্টস ২০ হাজার ৫০০ জন, রিফিউজি অ্যান্ড প্রোটেক্টেড পারসন প্রোগ্রামে ৪৫ হাজার ৬৩০ জন, হিউম্যানিটেরিয়ান প্রোগ্রামে ৪ হাজার ২৫০ জন।

আগের ঘোষণা অনুযায়ী, ২০২০ সালে কানাডা সরকার ৩ লাখ ৪০ হাজার অভিবাসী নেবে। কানাডার বর্তমান অভিবাসন মন্ত্রী আহমেদ হুসেন ইতিমধ্যে ২০২১ সালে আরও ৩ লাখ ৫০ হাজার অভিবাসী নেওয়ার ব্যাপারে ঘোষণা দিয়েছেন।

কানাডা সরকারের দেওয়া অভিবাসনের এমন লোভনীয় সুযোগ আগ্রহীরা চেষ্টা করতে পারেন। আর এজন্য এখনই নিদিষ্ট শর্তাবলী পূরণ করে আবেদনের জন্য প্রস্তুতি নিতে পারেন।

উৎসঃ আমাদের সময়