ঢাকা ০৬:৩৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ মে ২০২৪, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
প্যারিসে Point d’Aide – এইড পয়েন্ট এর নতুন অফিসের উদ্বোধন তরুণ সাহিত্যিক সাদাত হোসাইনকে প্যারিসে সংবর্ধনা দিলো ফ্রান্সপ্রবাসী বাংলাদেশীরা গাজীপুর জেলা সমিতি,ফ্রান্স’র দ্বি বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত : ফারুক খান সভাপতি, জুয়েল সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত কেবল উপবাসের নামই সিয়াম নয়, প্রকৃত মানুষ হওয়ার শিক্ষাই সিয়াম ফ্রান্সে একটি সর্বজন গ্রহণযোগ্য ‘বাংলাদেশ সমিতি’র তাগিদ, একটি প্রস্তাবনা শিশু কিশোরদের নানা ইভেন্ট নিয়ে ইপিএস কমিউনিটি ফ্রান্সের স্বাধীনতা দিবস পালন জালালাবাদ অ্যাসোসিয়েশন ফ্রান্স’র নতুন কমিটির পরিচিতি ও ইফতার প্যারিসে ‘নকশী বাংলা ফাউন্ডেশন সম্মাননা’ পেলেন ফ্রান্স দর্পণ নির্বাহী সম্পাদক ফেরদৌস করিম আখঞ্জী নানা আয়োজনে প্যারিসে সাফের আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালন ‘পাঠশালা’ – ফরাসী ভাষা শিক্ষার স্কুল উদ্বোধন

খালেদা জিয়া গ্রেফতার হওয়ার পর হঠাৎ কূটনৈতিক তৎপরতা

  • আপডেট সময় ০৩:৫৫:৪৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৮
  • ২৮৮ বার পড়া হয়েছে

নির্বাচনের বছরে খালেদা জিয়া কারাগারে যাওয়ার পর হঠাৎ করে দেশের রাজনীতিতে উত্তাপ বেড়ে গেছে। সেই সাথে দেশ-বিদেশে কূটনীতিক তৎপরতাও বৃদ্ধি পেয়েছে। বিশেষ করে বহুল আলোচিত জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কারান্তরীণের পর বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকরা বেশ তৎপর হয়ে উঠেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। সেই সঙ্গে জাতিসংষের বক্তব্যও বেশ লক্ষ্যণীয়। রাজনীতিতে উত্তাপের মধ্যে গতকাল সন্ধ্যা ৬টায় গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সফররত ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধিরা বৈঠক করেন বিএনপির নেতাদের সঙ্গে। এর আগে ১৩ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকদের সাথে বিএনপির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। এব্যাপারে কূটনীতিকরা কোন মন্তব্য না করলেও বিএনপির বিশ্বস্ত সূত্র জানিয়েছে, বৈঠকে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়ার সাজা, লন্ডনে তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দূতাবাসে হামলার অভিযোগ ও সমসাময়িক রাজনৈতিক বিষয়ে কূটনীতিকদের অবহিত করা হয়েছে। এর আগে ১১ ফেব্রুয়ারি রবিবার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর সাথে মার্কিন দূতাবাসের দুই কর্মকর্তার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। তবে কোন পক্ষই এব্যাপারে মুখ খুলেননি।

কূটনীতিকদের সাথে আলোচনার পর সাংবাদিকদের ব্রিফ করছেন বিএনপি মহাসচিব

এছাড়া ইউরোপীয় পার্লামেন্টের (ইইউ) ৩২ সদস্যের উচ্চ পর্যায়ের চারটি প্রতিনিধিদল রোহিঙ্গাসহ বাংলাদেশের সার্বিক বিষয় পর্যবেক্ষণ করছে বলে সংবাদ মাধ্যমে এসেছে। ইইউ সংসদের চারটি প্রতিনিধিদলের মানবাধিকার, পররাষ্ট্র সম্পর্ক, দক্ষিণ এশিয়া ও পূর্ব দক্ষিণ এশিয়া সম্পর্ক এবং দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক সম্পর্কিত সংসদ সদস্যরা বাংলাদেশে রয়েছেন।

জানা যায় আন্তকর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের প্রস্তাব ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মামলার রায়ের বিষয় সরেজমিনে দেখতে ও মৌলিক রাজনৈতিক অধিকার, মতপ্রকাশের স্বাধীনতা, বিচারবহিভূর্ত হত্যাকা-, শ্রম অধিকারসহ বাংলাদেশের সামগ্রিক মানবাধিকার পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে ইউরোপীয় পার্লামেন্টের প্রতিনিধি দলটি বাংলাদেশে এসেছে। পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধিদলটি ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনীতিক, ব্যবসায়ী, নাগরিক সমাজ ও গণমাধ্যমের প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনা করছে এবং করবে। গতকাল তারা নির্বাচন কমিশন ভবনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার নুরুল হুদার সাথে বৈঠক করেছে। এরপর বাংলাদেশ ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধি দলটি জানান, নির্বাচন কমিশনকে স্বাধীন ও রাজনৈতিক দলগুলোর কাছে আরো বিশ্বস্ত হিসাবে দেখতে চায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন। তারা নিজেদের অবস্থান সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তুলে ধরবেন বলে জানিয়েছে ইইউ অফিসের একজন কর্মকর্তা। শুধু তাই নয় বিগত ৩০ জানুয়ারি রাজধানীর গুলশানে ঢাকায় নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকদের সঙ্গে জরুরি বৈঠক করে বিএনপি। বৈঠকে ভারত, জাপান, কুয়েত, স্পেন, সউদী আরব, ইতালি, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, ব্রিটিশ, ভ্যাটিক্যান, ডেনমার্ক, কানাডা, নেপাল, অস্ট্রেলিয়া, মরক্কো, লেদারল্যান্ডসের কূটনীতিক এবং ইউএসএআইডি (আন্তর্জাতিক সংস্থা) প্রতিনিরিা।
এদিকে ৮ ফেব্রুয়ারী নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘ সদর দপ্তরে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে জাতিসংঘ মহাসচিবের উপ-মুখপাত্র ফারহান হক জানান, বেগম জিয়ার গ্রেফতার এবং এ সম্পর্কিত ঘটনাগুলোর খবর আমরা কেবল পেয়েছি। আমরা মাঠপর্যায়ের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি এবং সে অনুযায়ী প্রতিক্রিয়া জানাব। সহিংসতার যেকোনো খবরে অবশ্যই আমরা উদ্বিগ্ন থাকব। জাতিসংঘ মহাসচিবের উপ-মুখপাত্র আরো বলেন, বাংলাদেশের পরিস্থিতি আরো মূল্যায়ন শেষে তারা (জাতিসংঘ) এ বিষয়ে বলবেন। খালেদা জিয়ার রায়ের প্রভাব মূল্যায়নের মতো সময় এখনো আসেনি। তবে জাতিসংঘ বাংলাদেশে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন ও গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার জন্য আহ্বান জানানো অব্যাহত রাখবে। জাতিসংঘ মহাসচিবের উপমুখপাত্র বলেন, মানবাধিকার লঙ্ঘনের সঙ্গে জড়িতরা যাতে শান্তিরক্ষা মিশনে আসতে না পারে সে জন্য সব দেশের ক্ষেত্রেই এটি করা হয়।
আবার বাংলাদেশে বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠান এবং চাপের মুখে থাকা নাগরিক সমাজ ও গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান শক্তিশালীকরণে ৮০ দশমিক ৯ মিলিয়ন ডলার বরাদ্দ দিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন। এ ফান্ড আইনের শাসন কায়েম ও মানবাধিকার পরিস্থিতির উন্নয়নেও ব্যয় হবে। ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের প্রস্তাবিত বাজেটে ইউএসএআইডি’র মাধ্যমে বাংলাদেশের জন্য এ অর্থ বরাদ্দ রাখা হয়েছে। গত সোমবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডেনাল্ড ট্রাম্প ২০১৮-১৯ সালের পররাষ্ট্র বিষয়ক বাজেট ঘোষণা করেন। ডেনাল্ড ট্রাম্প তাঁর প্রস্তাবিত বাজেটে আফগানিস্তানের জন্য ৫০০ মিলিয়ন, পাকিস্তানের জন্য ২০০ মিলিয়ন ডলার প্রস্তাব করেছেন। এর বাইরে সাহায্য তালিকায় দক্ষিণ এশিয়ার অন্য কোনো দেশ নেই।
এদিকে সরকারও দেশের পরিস্থিতি এবং সরকারের অবস্থান তুলে ধরতে বিদেশে অবস্থানরত দূতাবাসগুলোতে নির্দেশনা পাঠাচ্ছে বলে মিডিয়ায় খবর বের হয়েছে। গতকালও ধামরাইয়ের বালি এলাকায় চৌহাট-আমতাবালিয়া-মির্জাপুর সড়কের বংশী নদীর উপরে সেতু উদ্বোধনের পর এক জনসমাবেশে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, এখন বিএনপি দেশের বিষয়ে বিদেশিদের ডেকে এনে নালিশ করছে।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

লক ডাউন পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবেলায় ফ্রান্সে চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি

যুক্তরাজ্যে করোনার মধ্যেই শিশুদের মাঝে নতুন রোগের হানা

প্যারিসে Point d’Aide – এইড পয়েন্ট এর নতুন অফিসের উদ্বোধন

খালেদা জিয়া গ্রেফতার হওয়ার পর হঠাৎ কূটনৈতিক তৎপরতা

আপডেট সময় ০৩:৫৫:৪৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৮

নির্বাচনের বছরে খালেদা জিয়া কারাগারে যাওয়ার পর হঠাৎ করে দেশের রাজনীতিতে উত্তাপ বেড়ে গেছে। সেই সাথে দেশ-বিদেশে কূটনীতিক তৎপরতাও বৃদ্ধি পেয়েছে। বিশেষ করে বহুল আলোচিত জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কারান্তরীণের পর বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকরা বেশ তৎপর হয়ে উঠেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। সেই সঙ্গে জাতিসংষের বক্তব্যও বেশ লক্ষ্যণীয়। রাজনীতিতে উত্তাপের মধ্যে গতকাল সন্ধ্যা ৬টায় গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সফররত ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধিরা বৈঠক করেন বিএনপির নেতাদের সঙ্গে। এর আগে ১৩ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকদের সাথে বিএনপির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। এব্যাপারে কূটনীতিকরা কোন মন্তব্য না করলেও বিএনপির বিশ্বস্ত সূত্র জানিয়েছে, বৈঠকে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়ার সাজা, লন্ডনে তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দূতাবাসে হামলার অভিযোগ ও সমসাময়িক রাজনৈতিক বিষয়ে কূটনীতিকদের অবহিত করা হয়েছে। এর আগে ১১ ফেব্রুয়ারি রবিবার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর সাথে মার্কিন দূতাবাসের দুই কর্মকর্তার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। তবে কোন পক্ষই এব্যাপারে মুখ খুলেননি।

কূটনীতিকদের সাথে আলোচনার পর সাংবাদিকদের ব্রিফ করছেন বিএনপি মহাসচিব

এছাড়া ইউরোপীয় পার্লামেন্টের (ইইউ) ৩২ সদস্যের উচ্চ পর্যায়ের চারটি প্রতিনিধিদল রোহিঙ্গাসহ বাংলাদেশের সার্বিক বিষয় পর্যবেক্ষণ করছে বলে সংবাদ মাধ্যমে এসেছে। ইইউ সংসদের চারটি প্রতিনিধিদলের মানবাধিকার, পররাষ্ট্র সম্পর্ক, দক্ষিণ এশিয়া ও পূর্ব দক্ষিণ এশিয়া সম্পর্ক এবং দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক সম্পর্কিত সংসদ সদস্যরা বাংলাদেশে রয়েছেন।

জানা যায় আন্তকর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের প্রস্তাব ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মামলার রায়ের বিষয় সরেজমিনে দেখতে ও মৌলিক রাজনৈতিক অধিকার, মতপ্রকাশের স্বাধীনতা, বিচারবহিভূর্ত হত্যাকা-, শ্রম অধিকারসহ বাংলাদেশের সামগ্রিক মানবাধিকার পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে ইউরোপীয় পার্লামেন্টের প্রতিনিধি দলটি বাংলাদেশে এসেছে। পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধিদলটি ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনীতিক, ব্যবসায়ী, নাগরিক সমাজ ও গণমাধ্যমের প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনা করছে এবং করবে। গতকাল তারা নির্বাচন কমিশন ভবনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার নুরুল হুদার সাথে বৈঠক করেছে। এরপর বাংলাদেশ ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধি দলটি জানান, নির্বাচন কমিশনকে স্বাধীন ও রাজনৈতিক দলগুলোর কাছে আরো বিশ্বস্ত হিসাবে দেখতে চায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন। তারা নিজেদের অবস্থান সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তুলে ধরবেন বলে জানিয়েছে ইইউ অফিসের একজন কর্মকর্তা। শুধু তাই নয় বিগত ৩০ জানুয়ারি রাজধানীর গুলশানে ঢাকায় নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকদের সঙ্গে জরুরি বৈঠক করে বিএনপি। বৈঠকে ভারত, জাপান, কুয়েত, স্পেন, সউদী আরব, ইতালি, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, ব্রিটিশ, ভ্যাটিক্যান, ডেনমার্ক, কানাডা, নেপাল, অস্ট্রেলিয়া, মরক্কো, লেদারল্যান্ডসের কূটনীতিক এবং ইউএসএআইডি (আন্তর্জাতিক সংস্থা) প্রতিনিরিা।
এদিকে ৮ ফেব্রুয়ারী নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘ সদর দপ্তরে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে জাতিসংঘ মহাসচিবের উপ-মুখপাত্র ফারহান হক জানান, বেগম জিয়ার গ্রেফতার এবং এ সম্পর্কিত ঘটনাগুলোর খবর আমরা কেবল পেয়েছি। আমরা মাঠপর্যায়ের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি এবং সে অনুযায়ী প্রতিক্রিয়া জানাব। সহিংসতার যেকোনো খবরে অবশ্যই আমরা উদ্বিগ্ন থাকব। জাতিসংঘ মহাসচিবের উপ-মুখপাত্র আরো বলেন, বাংলাদেশের পরিস্থিতি আরো মূল্যায়ন শেষে তারা (জাতিসংঘ) এ বিষয়ে বলবেন। খালেদা জিয়ার রায়ের প্রভাব মূল্যায়নের মতো সময় এখনো আসেনি। তবে জাতিসংঘ বাংলাদেশে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন ও গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার জন্য আহ্বান জানানো অব্যাহত রাখবে। জাতিসংঘ মহাসচিবের উপমুখপাত্র বলেন, মানবাধিকার লঙ্ঘনের সঙ্গে জড়িতরা যাতে শান্তিরক্ষা মিশনে আসতে না পারে সে জন্য সব দেশের ক্ষেত্রেই এটি করা হয়।
আবার বাংলাদেশে বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠান এবং চাপের মুখে থাকা নাগরিক সমাজ ও গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান শক্তিশালীকরণে ৮০ দশমিক ৯ মিলিয়ন ডলার বরাদ্দ দিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন। এ ফান্ড আইনের শাসন কায়েম ও মানবাধিকার পরিস্থিতির উন্নয়নেও ব্যয় হবে। ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের প্রস্তাবিত বাজেটে ইউএসএআইডি’র মাধ্যমে বাংলাদেশের জন্য এ অর্থ বরাদ্দ রাখা হয়েছে। গত সোমবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডেনাল্ড ট্রাম্প ২০১৮-১৯ সালের পররাষ্ট্র বিষয়ক বাজেট ঘোষণা করেন। ডেনাল্ড ট্রাম্প তাঁর প্রস্তাবিত বাজেটে আফগানিস্তানের জন্য ৫০০ মিলিয়ন, পাকিস্তানের জন্য ২০০ মিলিয়ন ডলার প্রস্তাব করেছেন। এর বাইরে সাহায্য তালিকায় দক্ষিণ এশিয়ার অন্য কোনো দেশ নেই।
এদিকে সরকারও দেশের পরিস্থিতি এবং সরকারের অবস্থান তুলে ধরতে বিদেশে অবস্থানরত দূতাবাসগুলোতে নির্দেশনা পাঠাচ্ছে বলে মিডিয়ায় খবর বের হয়েছে। গতকালও ধামরাইয়ের বালি এলাকায় চৌহাট-আমতাবালিয়া-মির্জাপুর সড়কের বংশী নদীর উপরে সেতু উদ্বোধনের পর এক জনসমাবেশে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, এখন বিএনপি দেশের বিষয়ে বিদেশিদের ডেকে এনে নালিশ করছে।