ঢাকা ১২:০১ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
তরুণ উদ্যোক্তা মাসুদ মিয়া-আয়ুব হাসানের যৌথ প্রয়াসের প্রতিষ্ঠান পিংক সিটি নিউ স্টার ফুটবল ক্লাব রতনপুরের সহসভাপতি সাইফুল ইসলাম সংবর্ধিত বালাগঞ্জে শান্তিপুর্ণভাবে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন সম্পন্ন : চমক দেখিয়ে আনহার মিয়া চেয়ারম্যান নির্বাচিত ফ্রান্সে বাংলাদেশি অভিবাসীদের জীবনমান উন্নয়নে ফরাসি জাতীয়তা বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত প্যারিসে Point d’Aide – এইড পয়েন্ট এর নতুন অফিসের উদ্বোধন তরুণ সাহিত্যিক সাদাত হোসাইনকে প্যারিসে সংবর্ধনা দিলো ফ্রান্সপ্রবাসী বাংলাদেশীরা গাজীপুর জেলা সমিতি,ফ্রান্স’র দ্বি বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত : ফারুক খান সভাপতি, জুয়েল সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত কেবল উপবাসের নামই সিয়াম নয়, প্রকৃত মানুষ হওয়ার শিক্ষাই সিয়াম ফ্রান্সে একটি সর্বজন গ্রহণযোগ্য ‘বাংলাদেশ সমিতি’র তাগিদ, একটি প্রস্তাবনা শিশু কিশোরদের নানা ইভেন্ট নিয়ে ইপিএস কমিউনিটি ফ্রান্সের স্বাধীনতা দিবস পালন

৫২ শতাংশ ফরাসী মনে করেন “ইয়েলো ভেষ্ট” আন্দোলন  বন্ধ হওয়া উচিত

  • আপডেট সময় ১০:২৮:২৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৯
  • ১৭৫ বার পড়া হয়েছে

Warning: Attempt to read property "post_excerpt" on null in /home/u305720254/domains/francedorpan.com/public_html/wp-content/themes/newspaper-pro/template-parts/common/single_two.php on line 117

দর্পণ ডেস্কঃ ফ্রান্স জুড়ে কয়েক মাস ধরে চলতে থাকা জিলে জোন বা ইয়েলো ভেষ্ট আন্দোলনের ইতি টানার পক্ষে রায় দিয়েছেন অধিকাংশ ফরাসি।  রবিবার প্রকাশিত সর্বশেষ একটি জরীপে এমনটি উঠে এসেছে। প্রকাশিত জরীপে দেখা যাচ্ছে ৫২ শতাংশ মানুষ চান না এ আন্দোলন অব্যাহত থাকুক।  এ হার আগের প্রকাশিত জরীপ থেকে ১৫ শতাংশ বেশি।  এক মাস আগে এ আন্দোলনের ইতি টানার পক্ষে ছিলেন ৩৭ অ্যাপ
ভাগ মানুষ। পক্ষান্তরে ৩৮ শতাংশ মানুষ মনে করেন, এ  আন্দোলন অব্যাহত থাকা উচিত। যা আগের প্রকাশিত জরপ থেকে ১৪ শতাংশ কমেছে।
গত বুধবার বিএফএম টিভি পরিচালিত আরেকটি জরীপে দেখা যায় ৫৬ শতাংশ ফরাসী জিলে জোন আন্দোলনের ইতি টানার পক্ষে।
প্রসংগত কয়েক মাস আগে জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে ইয়েলো ভেষ্ট আন্দোলনের শুরু হয়। আন্দোলনের প্রথম দিকে প্রায় প্রতি সপ্তাহে পুলিশের সাথে আন্দোলনকারীদের সংঘর্ষ বাধে। এমনকি এতে অনেকেই হতাহত হন। পুলিশ গ্রেফতার করে কয়েকশ আন্দোলনকারীকে। এমন পরিস্থিতিতে সরকারও জ্বালানী তেলের মূল্য বৃদ্ধি স্থগিত করে দেন। কিন্তু আন্দোলনে যুক্ত হয় আরও নতুন নতুন দাবী। এ সরকারকে তারা ধনীদের সরকার বলে অভিযুক্ত করতে থাকেন। এক পর্যায়ে চাপের মুখে সরকার আরো কিছু শ্রমিক বান্ধব কর্মসূচি নেয়। আবার ইয়েলো ভেষ্ট আন্দোলন কিছুটা জংগী রূপ নিলে ধীরে ধীরে জনপ্রিয়তা হারাতে শুরু করে। তবে এটা ঠিক এ আন্দোলন মানুষকে তার অধিকার আদায়ে একটা ধাক্কা দিতে পেরেছে।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

লক ডাউন পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবেলায় ফ্রান্সে চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি

যুক্তরাজ্যে করোনার মধ্যেই শিশুদের মাঝে নতুন রোগের হানা

তরুণ উদ্যোক্তা মাসুদ মিয়া-আয়ুব হাসানের যৌথ প্রয়াসের প্রতিষ্ঠান পিংক সিটি

৫২ শতাংশ ফরাসী মনে করেন “ইয়েলো ভেষ্ট” আন্দোলন  বন্ধ হওয়া উচিত

আপডেট সময় ১০:২৮:২৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৯

দর্পণ ডেস্কঃ ফ্রান্স জুড়ে কয়েক মাস ধরে চলতে থাকা জিলে জোন বা ইয়েলো ভেষ্ট আন্দোলনের ইতি টানার পক্ষে রায় দিয়েছেন অধিকাংশ ফরাসি।  রবিবার প্রকাশিত সর্বশেষ একটি জরীপে এমনটি উঠে এসেছে। প্রকাশিত জরীপে দেখা যাচ্ছে ৫২ শতাংশ মানুষ চান না এ আন্দোলন অব্যাহত থাকুক।  এ হার আগের প্রকাশিত জরীপ থেকে ১৫ শতাংশ বেশি।  এক মাস আগে এ আন্দোলনের ইতি টানার পক্ষে ছিলেন ৩৭ অ্যাপ
ভাগ মানুষ। পক্ষান্তরে ৩৮ শতাংশ মানুষ মনে করেন, এ  আন্দোলন অব্যাহত থাকা উচিত। যা আগের প্রকাশিত জরপ থেকে ১৪ শতাংশ কমেছে।
গত বুধবার বিএফএম টিভি পরিচালিত আরেকটি জরীপে দেখা যায় ৫৬ শতাংশ ফরাসী জিলে জোন আন্দোলনের ইতি টানার পক্ষে।
প্রসংগত কয়েক মাস আগে জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে ইয়েলো ভেষ্ট আন্দোলনের শুরু হয়। আন্দোলনের প্রথম দিকে প্রায় প্রতি সপ্তাহে পুলিশের সাথে আন্দোলনকারীদের সংঘর্ষ বাধে। এমনকি এতে অনেকেই হতাহত হন। পুলিশ গ্রেফতার করে কয়েকশ আন্দোলনকারীকে। এমন পরিস্থিতিতে সরকারও জ্বালানী তেলের মূল্য বৃদ্ধি স্থগিত করে দেন। কিন্তু আন্দোলনে যুক্ত হয় আরও নতুন নতুন দাবী। এ সরকারকে তারা ধনীদের সরকার বলে অভিযুক্ত করতে থাকেন। এক পর্যায়ে চাপের মুখে সরকার আরো কিছু শ্রমিক বান্ধব কর্মসূচি নেয়। আবার ইয়েলো ভেষ্ট আন্দোলন কিছুটা জংগী রূপ নিলে ধীরে ধীরে জনপ্রিয়তা হারাতে শুরু করে। তবে এটা ঠিক এ আন্দোলন মানুষকে তার অধিকার আদায়ে একটা ধাক্কা দিতে পেরেছে।