ঢাকা ০৯:৩৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
প্রবাসে বাংলার সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য ধরে রাখার লক্ষ্যে রোমে বৃহত্তম ঢাকাবাসীর পিঠা উৎসব নতুন তত্ত্ব ও জ্ঞান সৃষ্টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল উদ্দেশ্যঃ ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক ফ্রান্স দর্পণ পত্রিকার সম্পাদকের ভাইয়ের মৃত্যুতে প্যারিসে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত ইপিএস কমিউনিটি ইন ফ্রান্স এর উদ্যোগে মহান বিজয় দিবস পালিত গ্লোবাল জালালাবাদ এসোসিয়েশন ফ্রান্সের নবগঠিত কমিটির আত্মপ্রকাশ ফরাসি নাট্যমঞ্চে বাংলাদেশি শোয়েব বালাগঞ্জে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত রুপালী ব্যাংক লিমিটেড সুলতানপুর শাখার উদ্যোগে প্রকাশ্যে কৃষি ও পল্লী ঋণ বিতরণ অনুষ্ঠিত সাজাপ্রাপ্ত এক আসামীকে গ্রেফতার করেছে বালাগঞ্জ থানায় পুলিশ গহরপুরে কৃতি ফুটবলার লায়েক আহমদ সংবর্ধিত; জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে লেখাপড়ার গুরুত্ব অনুভব করেছি

৫২ শতাংশ ফরাসী মনে করেন “ইয়েলো ভেষ্ট” আন্দোলন  বন্ধ হওয়া উচিত

  • আপডেট সময় ১০:২৮:২৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৯
  • ১৪৭ বার পড়া হয়েছে

Warning: Attempt to read property "post_excerpt" on null in /home/u305720254/domains/francedorpan.com/public_html/wp-content/themes/newspaper-pro/template-parts/common/single_two.php on line 117

দর্পণ ডেস্কঃ ফ্রান্স জুড়ে কয়েক মাস ধরে চলতে থাকা জিলে জোন বা ইয়েলো ভেষ্ট আন্দোলনের ইতি টানার পক্ষে রায় দিয়েছেন অধিকাংশ ফরাসি।  রবিবার প্রকাশিত সর্বশেষ একটি জরীপে এমনটি উঠে এসেছে। প্রকাশিত জরীপে দেখা যাচ্ছে ৫২ শতাংশ মানুষ চান না এ আন্দোলন অব্যাহত থাকুক।  এ হার আগের প্রকাশিত জরীপ থেকে ১৫ শতাংশ বেশি।  এক মাস আগে এ আন্দোলনের ইতি টানার পক্ষে ছিলেন ৩৭ অ্যাপ
ভাগ মানুষ। পক্ষান্তরে ৩৮ শতাংশ মানুষ মনে করেন, এ  আন্দোলন অব্যাহত থাকা উচিত। যা আগের প্রকাশিত জরপ থেকে ১৪ শতাংশ কমেছে।
গত বুধবার বিএফএম টিভি পরিচালিত আরেকটি জরীপে দেখা যায় ৫৬ শতাংশ ফরাসী জিলে জোন আন্দোলনের ইতি টানার পক্ষে।
প্রসংগত কয়েক মাস আগে জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে ইয়েলো ভেষ্ট আন্দোলনের শুরু হয়। আন্দোলনের প্রথম দিকে প্রায় প্রতি সপ্তাহে পুলিশের সাথে আন্দোলনকারীদের সংঘর্ষ বাধে। এমনকি এতে অনেকেই হতাহত হন। পুলিশ গ্রেফতার করে কয়েকশ আন্দোলনকারীকে। এমন পরিস্থিতিতে সরকারও জ্বালানী তেলের মূল্য বৃদ্ধি স্থগিত করে দেন। কিন্তু আন্দোলনে যুক্ত হয় আরও নতুন নতুন দাবী। এ সরকারকে তারা ধনীদের সরকার বলে অভিযুক্ত করতে থাকেন। এক পর্যায়ে চাপের মুখে সরকার আরো কিছু শ্রমিক বান্ধব কর্মসূচি নেয়। আবার ইয়েলো ভেষ্ট আন্দোলন কিছুটা জংগী রূপ নিলে ধীরে ধীরে জনপ্রিয়তা হারাতে শুরু করে। তবে এটা ঠিক এ আন্দোলন মানুষকে তার অধিকার আদায়ে একটা ধাক্কা দিতে পেরেছে।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

লক ডাউন পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবেলায় ফ্রান্সে চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি

যুক্তরাজ্যে করোনার মধ্যেই শিশুদের মাঝে নতুন রোগের হানা

প্রবাসে বাংলার সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য ধরে রাখার লক্ষ্যে রোমে বৃহত্তম ঢাকাবাসীর পিঠা উৎসব

৫২ শতাংশ ফরাসী মনে করেন “ইয়েলো ভেষ্ট” আন্দোলন  বন্ধ হওয়া উচিত

আপডেট সময় ১০:২৮:২৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৯

দর্পণ ডেস্কঃ ফ্রান্স জুড়ে কয়েক মাস ধরে চলতে থাকা জিলে জোন বা ইয়েলো ভেষ্ট আন্দোলনের ইতি টানার পক্ষে রায় দিয়েছেন অধিকাংশ ফরাসি।  রবিবার প্রকাশিত সর্বশেষ একটি জরীপে এমনটি উঠে এসেছে। প্রকাশিত জরীপে দেখা যাচ্ছে ৫২ শতাংশ মানুষ চান না এ আন্দোলন অব্যাহত থাকুক।  এ হার আগের প্রকাশিত জরীপ থেকে ১৫ শতাংশ বেশি।  এক মাস আগে এ আন্দোলনের ইতি টানার পক্ষে ছিলেন ৩৭ অ্যাপ
ভাগ মানুষ। পক্ষান্তরে ৩৮ শতাংশ মানুষ মনে করেন, এ  আন্দোলন অব্যাহত থাকা উচিত। যা আগের প্রকাশিত জরপ থেকে ১৪ শতাংশ কমেছে।
গত বুধবার বিএফএম টিভি পরিচালিত আরেকটি জরীপে দেখা যায় ৫৬ শতাংশ ফরাসী জিলে জোন আন্দোলনের ইতি টানার পক্ষে।
প্রসংগত কয়েক মাস আগে জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে ইয়েলো ভেষ্ট আন্দোলনের শুরু হয়। আন্দোলনের প্রথম দিকে প্রায় প্রতি সপ্তাহে পুলিশের সাথে আন্দোলনকারীদের সংঘর্ষ বাধে। এমনকি এতে অনেকেই হতাহত হন। পুলিশ গ্রেফতার করে কয়েকশ আন্দোলনকারীকে। এমন পরিস্থিতিতে সরকারও জ্বালানী তেলের মূল্য বৃদ্ধি স্থগিত করে দেন। কিন্তু আন্দোলনে যুক্ত হয় আরও নতুন নতুন দাবী। এ সরকারকে তারা ধনীদের সরকার বলে অভিযুক্ত করতে থাকেন। এক পর্যায়ে চাপের মুখে সরকার আরো কিছু শ্রমিক বান্ধব কর্মসূচি নেয়। আবার ইয়েলো ভেষ্ট আন্দোলন কিছুটা জংগী রূপ নিলে ধীরে ধীরে জনপ্রিয়তা হারাতে শুরু করে। তবে এটা ঠিক এ আন্দোলন মানুষকে তার অধিকার আদায়ে একটা ধাক্কা দিতে পেরেছে।