ঢাকা ০৪:৫৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
বালাগঞ্জের হাফিজ মাওলানা সামসুল ইসলাম লন্ডনের university of central Lancashire থেকে মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জন করলেন বালাগঞ্জে সাংবাদিকদের সাথে উপ-নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হাজী রফিক আহমদ এর মতবিনিময় দেওয়ানবাজার ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল আলমের পক্ষ থেকে বন্যার্তদের মাঝে খাবার বিতরণ জনকল্যাণ ডেভেলপমেন্ট এসোসিয়েশন ইউকের পক্ষ থেকে উপহার সামগ্রী বিতরণ প্যারিসে অনুষ্ঠিত হলো, ‘রৌদ্র ছায়ায় কবি কন্ঠে কাব্য কথা’ শীর্ষক কবিতায় আড্ডা ফ্রান্স দর্পণ – কমিউনিটি-সংবেদনশীল মুখপত্র এম সি ইন্সটিটিউট ফ্রান্সের সুধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত বিএনপি চেয়ারপারসনের “স্পেশাল এসিস্ট্যান্ট টু দ্য ফরেন এফেয়ার্স” উপদেষ্টা হলেন হাজি হাবিব ইপিএস কমিউনিটি ফ্রান্সের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হলো ‘ফেত দ্যো লা মিউজিক ২০২৪ তরুণ উদ্যোক্তা মাসুদ মিয়া-আয়ুব হাসানের যৌথ প্রয়াসের প্রতিষ্ঠান পিংক সিটি

বিশ্বকাপে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল যে দেশগুলো

  • আপডেট সময় ১১:২৬:০৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ জুন ২০১৮
  • ১৪১ বার পড়া হয়েছে

ফুটবলে সবচেয়ে বড় ও জমজমাট আসর ফিফা বিশ্বকাপ। ১৮ ক্যারেট সোনায় তৈরি ৬১৭৫ গ্রাম ওজনের ৩৬ সেন্টিমিটার উচ্চতাবিশিষ্ট বিশ্বকাপ ট্রফিটি জেতা প্রতিটি দেশের কাছেই স্বপ্ন।

আর তা যদি হয় কোনো দলের কাছেই না হেরে, তবে সে জয় যে কতটা দাপুটে, কতটা দুর্দান্ত তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এমন দাপুটে বিশ্বকাপজয়ী দেশের সংখ্যা মাত্র তিনটি।

চলতি রাশিয়া বিশ্বকাপের আগে ফুটবলের এ বড় প্ল্যাটফর্মটি ২০ বার পৃথিবীতে তার জৌলস দেখিয়ে গেছে। ২০ বারের ফাইনালে বিশ্বকাপটিকে নিজের করে নিতে পেরেছে কেবল আট দেশ। এর মধ্যে কোনো ম্যাচ না হেরে বিশ্বকাপ জেতার রেকর্ড হয়েছে মাত্র চারবার।

উরুগুয়ে : ১৯৩০ সালে প্রথম বিশ্বকাপেই এ নজির গড়ে উরুগুয়ে। স্বাগতিক হয়ে এ রেকর্ড গড়েন তারা। ফাইনালে আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় উরুগুয়ে।

ইতালি : ১৯৩৮ সালে ফ্রান্সের মাটিতে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হয় ইতালি। ফাইনালে হাঙ্গেরিকে হারায় তারা। আট বছর পর উরুগুয়ের রেকর্ডটি স্পর্শ করেন তারা। ওই আসরে ইতালিকে কোনো দল হারাতে পারেনি।

ব্রাজিল : ৫৮ ও ৬২-তে বিশ্বকাপ জেতার স্বাদ পেলেও অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হওয়ার স্বাদটি পায় ব্রাজিল ১৯৭০ সালে। ফুলবল বিশারদদের মতে, ১৯৭০ সালের ব্রাজিলের দলটি বিশ্বের সর্বকালের সেরা দল। পেলে, জর্জিনহো, টোস্টাওদের সেই দল সহজেই তাদের প্রতিপক্ষকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়। ফাইনালে তারা ইতালিকে ৪-১ গোলে হারিয়ে দেয়।

ব্রাজিল : একই রেকর্ড আবার স্পর্শ করে ব্রাজিল। অর্থাৎ ২০০২ সালে রোনালদো, রোনালদিনহো ও কার্লোসের মতো তারকায় ভরা সে দলটি পর পর ম্যাচ জিতে চ্যাম্পিয়ন হয়। ফাইনালে জার্মানিকে হারায় তারা। সে বিশ্বকাপে রোনালদোর পায়ে বল আসা মানেই যেন প্রতিপক্ষের জালে গোল নিয়মে পরিণত হয়ে গিয়েছিল।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

লক ডাউন পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবেলায় ফ্রান্সে চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি

যুক্তরাজ্যে করোনার মধ্যেই শিশুদের মাঝে নতুন রোগের হানা

বালাগঞ্জের হাফিজ মাওলানা সামসুল ইসলাম লন্ডনের university of central Lancashire থেকে মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জন করলেন

বিশ্বকাপে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল যে দেশগুলো

আপডেট সময় ১১:২৬:০৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ জুন ২০১৮

ফুটবলে সবচেয়ে বড় ও জমজমাট আসর ফিফা বিশ্বকাপ। ১৮ ক্যারেট সোনায় তৈরি ৬১৭৫ গ্রাম ওজনের ৩৬ সেন্টিমিটার উচ্চতাবিশিষ্ট বিশ্বকাপ ট্রফিটি জেতা প্রতিটি দেশের কাছেই স্বপ্ন।

আর তা যদি হয় কোনো দলের কাছেই না হেরে, তবে সে জয় যে কতটা দাপুটে, কতটা দুর্দান্ত তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এমন দাপুটে বিশ্বকাপজয়ী দেশের সংখ্যা মাত্র তিনটি।

চলতি রাশিয়া বিশ্বকাপের আগে ফুটবলের এ বড় প্ল্যাটফর্মটি ২০ বার পৃথিবীতে তার জৌলস দেখিয়ে গেছে। ২০ বারের ফাইনালে বিশ্বকাপটিকে নিজের করে নিতে পেরেছে কেবল আট দেশ। এর মধ্যে কোনো ম্যাচ না হেরে বিশ্বকাপ জেতার রেকর্ড হয়েছে মাত্র চারবার।

উরুগুয়ে : ১৯৩০ সালে প্রথম বিশ্বকাপেই এ নজির গড়ে উরুগুয়ে। স্বাগতিক হয়ে এ রেকর্ড গড়েন তারা। ফাইনালে আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় উরুগুয়ে।

ইতালি : ১৯৩৮ সালে ফ্রান্সের মাটিতে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হয় ইতালি। ফাইনালে হাঙ্গেরিকে হারায় তারা। আট বছর পর উরুগুয়ের রেকর্ডটি স্পর্শ করেন তারা। ওই আসরে ইতালিকে কোনো দল হারাতে পারেনি।

ব্রাজিল : ৫৮ ও ৬২-তে বিশ্বকাপ জেতার স্বাদ পেলেও অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হওয়ার স্বাদটি পায় ব্রাজিল ১৯৭০ সালে। ফুলবল বিশারদদের মতে, ১৯৭০ সালের ব্রাজিলের দলটি বিশ্বের সর্বকালের সেরা দল। পেলে, জর্জিনহো, টোস্টাওদের সেই দল সহজেই তাদের প্রতিপক্ষকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়। ফাইনালে তারা ইতালিকে ৪-১ গোলে হারিয়ে দেয়।

ব্রাজিল : একই রেকর্ড আবার স্পর্শ করে ব্রাজিল। অর্থাৎ ২০০২ সালে রোনালদো, রোনালদিনহো ও কার্লোসের মতো তারকায় ভরা সে দলটি পর পর ম্যাচ জিতে চ্যাম্পিয়ন হয়। ফাইনালে জার্মানিকে হারায় তারা। সে বিশ্বকাপে রোনালদোর পায়ে বল আসা মানেই যেন প্রতিপক্ষের জালে গোল নিয়মে পরিণত হয়ে গিয়েছিল।